উত্তর ভারতে কুয়াশার দাপটে বিপর্যস্ত রেল ও বিমান পরিষেবা, রাজধানীতে শীতলতম দিন


সোমবার,২২/১২/২০১৪
266

নয়াদিল্লি: শীতে জুবুথুবু সমগ্র উত্তর ভারত। তাপমাত্রা নিম্নমুখী। রাজধানী দিল্লিতে আজ সকাল থেকেই ঘণ কুয়াশা। সূর্যের মুখ দেখা যায়নি। রাজধানীতে আজ মরশুমের শীতলতম দিন। তাপমাত্রা নেমেছে ৪.২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। প্রবল কুয়াশার কারণে কমেছে দৃশ্যমানতা। যার জেরে প্রায় ৩৬টি বিমান এবং ৫০টি ট্রেন দেরিতে চলছে দিল্লিতে। বিমানবন্দর সূত্রে খবর, দৃশ্যমানতা ৫০ মিটারের নীচে নেমে যাওয়ায় দেরিতে উড়ছে অধিকাংশ বিমান।যদিও সকাল নটার পর অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়। অন্য দিকে, উত্তর রেল জানিয়েছে, দিল্লি থেকে বেশ কয়েকটি দূরপাল্লার ট্রেন চলাচলে সময় পরিবর্তন করা হয়েছে। কুয়াশাচ্ছন্ন আকাশ, কনকনে ঠান্ডায় দিল্লি যেন হঠাত্ই থমকে গিয়েছে।

রবিবার দিল্লিতে মরসুমের শীতলতম দিন ছিল। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৪.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

গত দু’দিন ধরে উত্তর ভারতজুড়ে প্রবল শৈত্যপ্রবাহ চলছে। যার প্রকোপে উত্তরপ্রদেশে রবিবার মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের। জম্মু-কাশ্মীরে মৃত্যু হয় এক জনের। তবে এ দিন নতুন করে কোনও মৃত্যুর খবর পাওয়া না গেলেও প্রবল ঠান্ডা ও কুয়াশায় জবুথবু হয়ে পড়েছে গোটা উত্তর ভারত।

রবিবার থেকেই জম্মু-কাশ্মীর উপত্যকায় শুরু হয়েছে প্রবল শৈত্যপ্রবাহ। উপত্যকাজুড়ে প্রবল তুষারপাত হচ্ছে।

পঞ্জাবে গত চার দিন ধরে চলছে কুয়াশার দাপট। সেই সঙ্গে বইছে ঠান্ডা হাওয়া। রবিবার অমৃতসরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৩.৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কুয়াশার প্রভাব পড়েছে রেল ও সড়ক পরিবহণেও।

হিমাচলপ্রদেশে আগামী দু’তিন দিনের তুষারপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে রাজ্য আবহাওয়া দফতর। পাহাড়ি এলাকায় তাপমাত্রা হিমাঙ্কের অনেক নীচে নেমে যায়। সেখানকার কেলঙ, মানালি ও কল্পতে রবিবার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে হিমাঙ্কের ৭,৩ ও ১.৬ ডিগ্রি নীচে। কুলু ও মানালিতে জল সরবরাহ ব্যাহত হয়। প্রবল তুষারপাতের কারণে মানালি-কেলঙ হাইওয়ে বন্ধ হয়ে যায়। পরে তা পরিষ্কার করে যান চলাচল স্বাভাবিক করা হয় বলে প্রশাসন সূত্রে খবর। আগামী ৭২ ঘণ্টায় রাজ্যের বেশ কয়েকটি জায়গায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। 

হরিয়ানায় রবিবার সারা দিন ধরে শৈত্যপ্রবাহ চলেছে। সেখানে তাপমাত্রা এক ধাক্কায় নেমে বেশ কয়েক ডিগ্রি নেমে যায়। রাজস্থানে ঠান্ডার ছবিটাও প্রায় একই রকম। রবিবার চুরুতে তাপমাত্রার পারদ নেমে যায় হিমাঙ্কের ৫ ডিগ্রি নীচে। এই মরসুমের শীতলতম দিন ছিল সেখানে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট