পুরুলিয়ার মাঠা পাহাড়ে শিল্পীর ভূমিকায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত কয়েদীরা


সোমবার,২৩/০৩/২০১৫
430

সঞ্চিতা মুখোপাধ্যায়, পুরুলিয়াঃ সারা ভারতে এই প্রথম। সাজাপ্রাপ্ত প্রতিভাবান বন্দীদের পাহাড়ে চড়া এবং খোদাই-এর প্রশিক্ষনের কর্মশালা আয়োজন করা হয়। চার দেওয়ালের ভেতরে নয়। সুদূর আলীপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগার থেকে পুরুলিয়ার বাঘমুন্ডির পাখি পাহাড়ে তাঁদের এনে দুই দিন ব্যাপী কর্মশালা শুরু হল। একটি স্বেচ্ছাসেবি সংস্থার উদ্যোগে এবং রাজ্যের সংশোনাগার প্রশাসন বিভাগের সহযোগিতায় কলকাতার আলীপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারের ছয় জন বন্দী আবাসিকদের এই কর্মশালায় যোগ দেওয়ার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। খোলা আকাশের নিচে অযোধ্যার মাঠার পাখি পাহাড়ে পাথরে ভাস্কর্য তৈরী করছেন যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত এই কয়েদিরা। কেও পাথরের কারাগারের ভেতরে কাটিয়েছেন বারো বছর কেওবা কাটিয়েছেন কুড়ি বছর। বদ্ধ জীবনেই শিল্প সত্ত্বা খুঁজে পেয়েছেন তারা। আলীপুর সংশোধনাগারে রঙ তুলিতে নিজেদের প্রতিভার সাক্ষর আগেই রেখেছিলেন এই ছয় আবাসিক। তারপরই তারা নজরে পড়েন ভাস্কর চিত্ত দের। শুরু হয় পাথরের বুকে ভাস্কর্য নির্মাণের। পুরুলিয়ার মাঠা পাহাড়ে অনেক দিন ধরেই পাথর কেটে ভাস্কর্য করছেন চিত্তবাবু। অসাধারণ সেই চিত্ররূপ তুলে ধরে তিনি উৎসাহিত করতে চান এই যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তদের। আগামী দিনে যাতে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে তারা পেতে পারে জীবিকার এক নতুন ও সম্মানীয় মাধ্যম।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট