নকল শিক্ষক গ্রেফতার জলপাইগুড়িতে !


শনিবার,১১/০৭/২০১৫
284

খবরইন্ডিয়াঅনলাইনঃ    জলপাইগুড়িতে এবার প্রাথমিকে ভূয়ো শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে শুক্রবার ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়াল বিকেলে।প্রাথমিক শিক্ষকের ভুয়ো নিয়োগ পত্র নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষকের চাকরিতে যোগ দিতে এসে ধরা পরে গেল এক মুর্শিদাবাদের এক যুবক ।জলপাইগুড়ির জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান ধর্তিমোহন রায়ের তৎপরতায় মুর্শিদাবাদের এই যুবক ধরা পড়ার ব্যপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এদিন জলপাইগুড়ি জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান ধর্তিমোহন রায়ের অভিযোগ এদিন মুর্শিদাবাদ এর ডোমকল থানার অন্তর্গত মধ্যকাটাকোপরা গ্রামের আব্দুর রজ্জাক নামে এক যুবক প্রাথমিক শিক্ষকের নিয়োগপত্র নিয়ে তার দপ্তরে আসেন।নিয়োগ পত্র হাতে নিয়ে দেখতেই তার সন্দেহ হয় এরপর তিনি খোজ নিয়ে দেখেন নিয়োগপত্রটি ভুয়ো। এরপর জলপাইগুড়ি কোতয়ালি থানায় খবর দেওয়া হলে পুলিশ এসে ঐ ব্যক্তি ও তার সাথে আসা তার ভাইকে সুনমন আলিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে যায়।এদিকে পুলিশের হাতে ধৃত আব্দুর রজ্জাক বলেন তিনি নির্দোষ। তিনি ২০১২ সালে প্রাথমিক শিক্ষকের পরিক্ষা দিয়েছিলাম।তারপর সম্প্রতি তিনি পোষ্টের মাধ্যমে এই নিয়োগপত্রটি পান।আব্দুর জানান জলপাইগুড়িতে চাকরিতে যোগ দিতে এসে অনেক ঘোরাঘুরি করার পর পুর্ব বরুয়াপাড়া বোর্ড বিদ্যালয়ের ঠিকানা না পেয়ে তিনি আত তার ভাই জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান ধর্তিমোহন রায়ের সাথে দেখা করে জানতে চান এই স্কুলটি কোথায় তখন ধর্তিমোহন রায় তাদের ধরে ফেলেন বলে তার দাবি।এদিন ধর্তিমোহন রায় বলেন প্রাথমিক শিক্ষকের নিয়োগের ক্ষেত্রে জেলার প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের চেয়ারম্যান প্রাথামিক শিক্ষক নিয়োগের নিয়োগ পত্র দিয়ে থাকেন। কিন্তু এই ছেলেটি যে নিয়োগ পত্র এনেছেন তা রাজ্য প্রাথমিক শিক্ষা দপ্তরের সচিবের স্বাক্ষরিত নিয়োগ পত্র এনেছেন তা হতে পারে না।তাই সন্দেহ হয়।তিনি বলেন রাজ্য জুড়ে শিক্ষক নিয়োগের ভুয়ো নিয়োগ পত্র দেওয়া হচ্ছে আমরা এর তদন্ত চাই। এর জন্য কোতয়ালি থানায় একটি অভিযোগও জানান হয়েছে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট