নোংরা আবর্জনার মধ্যে কাটা পা পরে থাকতে দেখে চাঞ্চল্য ছড়াল রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালে


মঙ্গলবার,১৪/০৭/২০১৫
399

বিকাশ সাহাঃ    সোমবার বালুরঘাট হাসপাতালে এক শিশুর আঙ্গুল কাটার ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পর এদিন মঙ্গলবার পূর্ণ বয়স্ক মানুষের পা পরে থাকতে দেখে আতঙ্ক ছড়ায় উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালে। এদিন সকালে রায়গঞ্জ পৌরসভার পক্ষ থেকে প্রতিদিনের মতো এদিনও সাফাই কর্মীরা হাসপাতাল চত্বরের নোংরা আবর্জনা অন্যত্র নিয়ে যাবার সময় একটি কাটা পা নজরে আসে তাঁদের। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাফাই কর্মী থেকে শুরু করে রোগীর আত্মীয়দের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে। এ বিষয়ে জেলা যুব কংগ্রেস হাসপাতাল সুপারকে ডেপুটেশন দিতে এসে দুপক্ষ তর্ক বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন।
জেলা যুব কংগ্রেস সভাপতি মানষ ঘোষ বলেন, বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে শিশুর আঙ্গুল কেটে দেওয়া হয়েছে। রায়গঞ্জে একজন পূর্ণ বয়স্ক মানুষের কাটা পা নোংরা আবর্জনার মধ্যে রাস্তার ধারে পরে রয়েছে। গোটা রাজ্যের সঙ্গে উত্তরবঙ্গের বেহাল স্বাস্থ্য ব্যবস্থা সহ উত্তরবঙ্গের প্রতি রাজ্য সরকারের বঞ্চনার প্রতিবাদে আমরা এদিন হাসপাতাল সুপারের কাছে এসেছিলাম। রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালে কোনও চিকিৎসা ব্যবস্থা নেই। কোনও মানুষের পা কেটে ফেলে সেটা লুকানোর জন্য হাসপাতাল কর্তীপক্ষ নোংরা আবর্জনার মধ্যে কাটা পা টিকে ফেলে দিয়েছে।
রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালের সুপার অনুপ হাজরা বলেন, ভ্যাট তো নির্দিষ্ট যায়গায় ফেলা উচিত। অপারেশন করে বাদ দেওয়া অঙ্গ রাস্তায় পরে থাকার কথা নয়। অপারেশন করে কাটা অঙ্গগুলি একটা নির্দিষ্ট ভ্যাটে রাখা হয়। একটি নির্দিষ্ট সংস্থা এসে ঐ সকল ভ্যাট গুলি নিয়ে যায়। কাটা পা কিভাবে এখানে এল সেব্যাপারে তদন্ত শুরু করা হবে।RSCN7246

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট