রায়গঞ্জ সমবায় ব্যাঙ্কের নির্বাচনে তৃনমূলী সন্ত্রাসের প্রতিবাদে ধিক্কার মিছিল


সোমবার,১২/১০/২০১৫
297

 বিকাশ সাহাঃ   রায়গঞ্জ সেন্ট্রাল কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্কের পরিচালন কমিটির নির্বাচনে গুলি, বোমা ও ইট বৃষ্টির প্রতিবাদে পথে নামল উত্তর দিনাজপুর জেলা বামফ্রন্ট। এদিন রবিবার জেলার প্রতিটি ব্লকে বামফ্রন্টের মিছিলে হাঁটেন বাম নেতা কর্মীরা।
উল্লেখ্য শনিবার উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জের কর্ণজোড়ায় অবস্থিত বি এড ট্রেনিং কলেজে সকাল ১১ টা থেকে নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। সেই মতো ভোটাররা সকাল ৯ টা থেকে নির্বাচনী এলাকায় আসতে শুরু করে। বাম কর্মী সমর্থকদের অভিযোগ, ভোট গ্রহণ শুরুর আগেই তৃনমূল কংগ্রেসের বহিরাগত দুষ্কৃতিরা নির্বাচনী এলাকায় ভোটারদের ঢুকতে বাঁধা দেয়। এরপরেই আচমকাই পুলিশের সামনেই গুলি, বোমাবাজি সহ ইট বৃষ্টি শুরু করে দুষ্কৃতিরা। গুলিবিদ্ধ হয় বাম সমর্থক ছটু হাঁসদা ও জিয়ায়ুল হক। আহত মোট ৫ জন সিপিআইএম কর্মী রায়গঞ্জ জেলা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিল। সংঘর্ষের জেরে আহত হয়েছিলেন হেমতাবাদের সিপিআইএমের বিধায়ক খগেন্দ্র নাথ সিং, করণদিঘীর ফরওয়ার্ড ব্লকের বিধায়ক গোকুল রায় সহ রায়গঞ্জ থানার আই সি গৌতম চক্রবর্তী। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে নামানো হয়েছিল র‍্যাফ ও বিশাল পুলিশ বাহিনী । উল্টে বাম নেতা কর্মীদের উপর পুলিশ বেধড়ক লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ উঠেছিল। তৃনমূল কংগ্রেসের সন্ত্রাসের প্রতিবাদে শনিবার দুপুরে বেশ কিছুক্ষন ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরুদ্ধ করে রাখেছিল বাম কর্মী সমর্থকরা। উত্তর দিনাজপুর জেলার ৯ টি ব্লক ও দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুশমন্ডি, বুনিয়াদপুর ব্লকের ৪৭০ টা সমবায় সমিতির প্রতিনিধিরা শনিবার রায়গঞ্জের বি এড ট্রেনিং কলেজে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে সকাল ৯ টা থেকে আসতে শুরু করেছিল। বেলা ১১ টা থেকে ভোট হওয়ার জন্য নির্ধারিত সূচী ঠিক ছিল। কিন্তু নির্বাচন শুরুর আগেই গুলি ও বোমাবাজীতে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল নির্বাচনী এলাকা। যদিও বামফ্রন্টের আনা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে তৃনমূল কংগ্রেসের তরফে বলা হয়েছিল অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে বামফ্রন্টের লোকেরায় তৃনমূল কংগ্রেসের কর্মীদের উপর হামলা চালিয়েছিল। DSCN8170

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট