দক্ষিণ দিনাজপুর চার বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল


মঙ্গলবার,২৭/১০/২০১৫
229

পরিতোষ বর্মণঃ    ৪ বছরের এক শিশুকন্যাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠলো ১৪ বছরের এক কিশোরের বিরুদ্ধে। ঘটনার পর অভিযুক্ত কিশোর মধুসূদন দাসকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল রাতে ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর থানার শান্তিকলোনী এলাকায়। পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, গঙ্গারামপুর শান্তিকলোনীর বাসিন্দা পেশায় দিনমজুর প্রভাত সরকার ও তাঁর স্ত্রী রেখা সরকার প্রতিদিনের মতো কাজ করতে গিয়েছিলেন। এদিন কাজ শেষ করে বাড়ি ফিরতে বেশ কয়েক ঘণ্টা দেরি হয় তাদের। রাতে বাড়িতে কেউ না থাকার সুযোগে ওই দম্পতির ৪ বছরের শিশু কন্যাকে নিজের বাড়িতে ডেকে আনে মধুসূদন দাস। এরপর তাকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। এরিমধ্যে কাজ থেকে বাড়ি ফিরে মেয়ের খোঁজ শুরু করে ওই দম্পতি। বিষয়টি জানতে পেরে ধর্ষণের পর ওই শিশু কন্যাকে বাড়ি থেকে বের করে রাস্তায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত কিশোর মধুসূদন দাস। ভয় পেয়ে উচ্চস্বরে কাঁদতে থাকে ওই শিশুকন্যা। কান্নার আওয়াজ শুনে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে তার মা রেখা সরকার। ছোট্ট মেয়ের মুখে ঘটনার বিবরণ শুনে ক্ষিপ্ত হয় তাঁর বাবা-মা থেকে শুরু করে পাড়া-প্রতিবেশি সকলেই। একদিকে রক্তাক্ত অবস্থায় ওই শিশুকন্যাকে নিয়ে যাওয়া হয় গঙ্গারামপুর মহকুমা হাসপাতালে। অন্যদিকে খোঁজ শুরু হয় অভিযুক্ত কিশোর মধুসূদন দাসের। এলাকায় নষ্ট ছেলে বলেই বেশি পরিচিত মধুসূদন দাস বিভিন্ন ধরনের নেশায় আসক্ত। সমাজবিরোধী কাজের সঙ্গেও যুক্ত বলে জানিয়েছে প্রতিবেশিরা। পুরো ঘটনার আঁচ পেয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে এদিন রাতেই মধুসূদনকে ধরে ফেলে গ্রামবাসিরা। হাল্কা মারধরের পর তাকে তুলে দেয় গঙ্গারামপুর থানার পুলিশের হাতে। ধৃত ওই কিশোরকে মঙ্গলবার জুভেনাল কোর্টে তুলেছে পুলিশ। নির্যাতিতা শিশুর পরিবারের পাশাপাশি প্রতিবেশিরাও ধৃত মধুসূদন দাসের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছে। Paritosh Barman_photo

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট