বিগ বি ‘র নাতনি হেনস্তার শিকার হল


শুক্রবার,০৪/১২/২০১৫
289

খবরইন্ডিয়াঅনলাইনঃ     স্কুলের সহপাঠীদের হেনস্থার শিকার অমিতাভ বচ্চনের নাতনি নব্য নভেলি। শ্বেতা বচ্চন নন্দার মেয়ে নব্য ব্রিটেনের একটি স্কুলের ছাত্রী।
কিছুদিন পরেই আঠারোয় পা দেবে সে। শুধুমাত্র রোগা বলে স্কুলের বন্ধুরা তাকে রীতিমতো ক্ষেপাতে শুরু করেছে বলে তাঁর মা শ্বেতাকে ফোনে জানিয়েছে নব্য। একটি সংবাদপত্রে শ্বেতা
সম্প্রতি ওই ঘটনার কথা লিখেছেন। এ-ও জানিয়েছেন, মেয়ের সঙ্গে ওই ঘটনা তাকে মনে করিয়ে দিয়েছে তাঁর তরুণী বয়সের দিনগুলোর কথা।
তিনি লিখেছেন, ব্রিটেনে মেয়েদের ১৮ বছরে পা দেওয়া একটা বিশেষ ব্যাপার বলে ধরা হয়। তিনিও এজন্য কিছুদিন ধরে পার্টি দেওয়ার কথা ভাবছিলেন। তারই মধ্যে একদিন রাতে হঠাত্ ফোন মেয়ের। অন্যপ্রান্তের কণ্ঠস্বর উদ্বেগ আর হতাশায় ভরা। পর পর কয়েকটা টেক্সট। কিছু ছবি। বুঝতে দেরি হয়নি সে বন্ধুদের হেনস্থার শিকার। প্রথমেই খুব রেগেই গিয়েছিলেন শ্বেতা।
লিখেছেন, ‘কত ভালবেসে যত্নে শিশুদের পৃথিবীতে নিয়ে আসি আমরা। প্রতিদিন কতভাবে তাদের বোঝাই তারা কত সুন্দর। তখন হঠাত্ যদি কেউ শুধু বন্ধু বলে তার সেই ধারণা ভেঙেচুরে দিয়ে যায়, তবে এর চেয়ে খারাপ আর কী-ই বা হতে পারে’!
মেয়ের হেনস্থায় শ্বেতার মনে পড়ে গিয়েছে নিজের ১২ বছর বয়সের কথা। বিশেষ ধরনের চুলের স্টাইলে তখন তাঁর নিজেকে মনে হত ‘বটলব্রাশে’র  মতো। যে পোশাক পরতেন, তাতেই নিজেকে অস্বস্তিকর মনে হতো। সেইসময় তার হাত-পায়ের দ্রুত বৃদ্ধি নিয়েও উদ্বেগে থাকতেন। বুঝতে পারতেন না কী করা উচিত। এর মধ্যে একদিন এক ক্লাসে এক বন্ধু তাঁকে কটাক্ষ করে ‘বড় পাখি’র সঙ্গে তুলনা করে। সেটাই স্কুলে তার পরিচয় হয়ে দাঁড়ায়।
মেয়েকে ফোন করেন শ্বেতা। নব্য তখনও কাঁদছিল। শ্বেতা তাকে জানান, এমন ঘটনা কিন্তু
আবারও ঘটতে পারে। কিন্তু তাই বলে সে কে, তা ঠিক করার সুযোগ যেন দুনিয়াকে না দেয়। যে পরিবারে সে জন্মেছে তা চিরাচরিত রীতিকে ভাঙার গৌরব অর্জন করেছে। শ্বেতা লিখেছেন, আজ তাঁর কথার মর্ম না বুঝলেও একদিন নব্য উপলব্ধি করবে।
ফোন রেখে শ্বেতা নিজের মনেই বলে উঠেছিলেন, আঘাত সঙ্গে যুঝতে শেখো মেয়ে। এটাই প্রাপ্তবয়সের প্রথম শিক্ষা।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট