মুসলিমদের বিরুদ্ধে বাজে কথা নয়, ওবামা


মঙ্গলবার,০৮/১২/২০১৫
369

 খবরইন্ডিয়াঅনলাইনঃ    বারাক ওবামা যুক্তরাষ্ট্রের মুসলিমদের প্রতি খারাপ  আচরণ না করতে দেশবাসীর প্রতি আহ্‌বান জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তিনি তার দেশ ও বিশ্বের মুসলমানদের সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে বলেছেন।

রবিবার সন্ধ্যায় সন্ধ্যায় হোয়াইট হাউসের ওভাল অফিস থেকে জাতির উদ্দেশে টেলিভিশনে দেওয়া ভাষণে এই আহ্‌বান জানান ওবামা।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট তার ভাষণে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে নতুন কোনো যুদ্ধকৌশল ঘোষণা করেননি। এ ছাড়া আইএস মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্র সেনা পাঠানোর কোনো ঘোষণাও দেননি তিনি।

গত সপ্তাহে ক্যালিফোর্নিয়ার সান বার্নার্দিনোয় এক দম্পতির গুলিতে হতাহতের ঘটনার পর ওবামা এই ভাষণে বেশ কিছু নীতিগত সিদ্ধান্তের ঘোষণা আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছিল। ওই হামলায় ১৪ জন নিহত ও ২১ জন আহত হন। এ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে নাগরিকদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ, উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা, সন্দেহ ও আতঙ্ক বিরাজ করছে।

দেশবাসীকে আশ্বস্ত করে ওবামা বলেন, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাস মোকাবিলায় যুক্তরাষ্ট্র সর্বাত্মক উদ্যোগ নিয়েছে। যে করেই হোক, এই জঙ্গিবাদকে মোকাবিলা করা হবে। আইএসকে নির্মূল করতে যুক্তরাষ্ট্র সর্বশক্তি প্রয়োগ করবে। এই অপশক্তির বিরুদ্ধে জয়ী হওয়ার জোরালো প্রত্যয় ঘোষণা করেন তিনি।
ওবামা তার ভাষণে যুক্তরাষ্ট্রের মুসলমানদেরও আশ্বস্ত করেছেন। তাদের চাপা আতঙ্ক দূর করার চেষ্টা করেছেন। চরমপন্থীদের অপকর্মের দায়ে মুসলিমদের সন্দেহ না করতে দেশবাসীর প্রতি আহ্‌বান জানিয়েছেন তিনি।

ওবামা জোরালো কণ্ঠে বলেন, আইএসবিরোধী যুদ্ধ মুসলমানদের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ নয়। চরমপন্থা রুখে দিতে মুসলমানদের প্রতি আহ্‌বান জানান যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট।

ওবামা বলেন, পশ্চিমের সঙ্গে ইসলামের যুদ্ধ পরিচালনার অভিপ্রায় নিয়ে কাজ করছে আইএস। তাদের ফাঁদে পা না দিয়ে সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় কাজ করবে যুক্তরাষ্ট্র।

ওবামা তার ভাষণে উল্লেখ করেন, আইএস চায়- আমেরিকা দখলদার শক্তি হিসেবে তাদের দেশে যাবে। আর তারা চোরাগোপ্তা হামলা চালিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সেনাদের প্রাণহানি ঘটাবে। এই পথে না গিয়ে আইএস দমন করবে যুক্তরাষ্ট্র। এ জন্য সামরিক শক্তি প্রয়োগের বিষয়টি অনুমোদন করতে কংগ্রেসের প্রতি আহ্‌বান জানান তিনি। যদিও আগে থেকেই ইরাক ও সিরিয়ায় আইএসের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র সামরিক শক্তি ব্যবহার করে আসছে।

ওবামা তার ভাষণে অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ আইনের কড়াকড়ির ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। ‘নো-ফ্লাই’ তালিকায় থাকা লোকজন, মারাত্মক অপরাধীরা যাতে সহজে আগ্নেয়াস্ত্র কিনতে না পারে, সে জন্য আইন প্রণয়ন করতে কংগ্রেসের প্রতি আহ্‌বান জানান তিনি।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট