এবছর রকফেলারে আসছে ৭৫ ফুটে “ক্রিসমাস ট্রি”


বৃহস্পতিবার,১৪/১২/২০১৭
2085

নিজস্ব সংবাদদাতা : Christmas উপলক্ষে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও নিউইয়র্ক শহরে রকফেলার সেন্টারে আয়োজিত হচ্ছে “ক্রিসমাস ট্রি” উৎসব। অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ ‘ক্রিসমাস ট্রি’ এবছর আসছে পেনসিলভানিয়ার স্টেট কলেজ এলাকা থেকে। এবারের গাছটির উচ্চতা হবে ৭৫ ফুট।

সূত্র সিএনএন, ১৯৩৩ সালে শুরু হওয়া এই উৎসব শহরের অন্যতম এক ঐতিহ্য হিসেবে বিবেচিত হয়। চোখ-ধাঁধানো সজ্জা নিয়ে প্রতিবছর রকফেলার সেন্টার ও এর কেন্দ্রে স্থাপিত ক্রিসমাস ট্রি বড়দিনের আগমনী বার্তা নিয়ে হাজির হয় নিউইয়র্কবাসীর সামনে। ১৯৩১ সাল থেকে এটিই হয়ে উঠেছে এই শহরের বড়দিন উৎসবের অন্যতম অনুষঙ্গ। স্থানীয়দের কাছে এর আবেদন আকাশছোঁয়া। নিউইয়র্কের এ ঐতিহ্যকে চাক্ষুষ করতে প্রতিবছর ম্যানহাটনে জড়ো হন বহু বহিরাগতও।

২ ডিসেম্বর সিএনএন এক প্রতিবেদনে এই ক্রিসমাস ট্রির ইতিহাস তুলে ধরে। প্রতিবেদন মতে, ১৯৩১ সালে মহামন্দায় যখন পুরো দেশের পাশাপাশি নিউইয়র্ক শহরও পর্যুদস্ত হয়ে উঠেছে। সবার মধ্যে বিরাজ করছে এক অন্তর্গত শঙ্কা। একটা প্রাণহীন জনপদে রূপান্তর ঘটছে নিউইয়র্কের। ঠিক সেই সময়ই উৎসব ও প্রাণের বার্তা নিয়ে হাজির হয় এই ক্রিসমাস ট্রি। এটি স্থাপনকে কেন্দ্র করে কাজ পেয়ে যান অনেক শ্রমিক। একটা সঞ্জীবনী শক্তি নিয়েই হাজির হয়েছিল এই ক্রিসমাস ট্রি। ১৯৩৩ সাল থেকে এই গাছকে কেন্দ্র করে বড় ধরনের উৎসব অনুষ্ঠানের সূচনা হয়, যা আজও বহাল আছে। আর ১৯৫১ সাল থেকে নতুন নতুন আঙ্গিকে আয়োজিত উৎসব অনুষ্ঠানের সরাসরি সম্প্রচার হতে শুরু করে মার্কিন জাতীয় টেলিভিশনে।

এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বড় ক্রিসমাস ট্রি বসানো হয়েছিল ১৯৯৯ সালে। সেটি ছিল ১০০ ফুট উঁচু। কানেটিকাটের কিলিংওর্থ থেকে ওই গাছ আনা হয়েছিল। এর দুই বছর পর ২০০১ সালে রকফেলার প্রাঙ্গণের উৎসব হাজির হয়েছিল নতুন এক বাণী নিয়ে। টুইন টাওয়ার হামলার বিয়োগব্যথা যেন লেপ্টে ছিল ওই বছরের উৎসবের প্রতিটি ভাঁজে। রকফেলার সেন্টার সে সময় সাজানো হয়েছিল লাল, সাদা ও নীল রঙে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট