‌সি‌নেমা রি‌ভিউ “টাইগার জিন্দা হ্যা”


মঙ্গলবার,২৬/১২/২০১৭
1884

সত্য‌জিৎ মন্ডল: বড়দিনে সিনে প্রেমিদের মুখে হাসি ফোটাল সালমান খান ক্যাটরিনা কাইফ অভিনীত বলিউড মুভি “টাইগার জিন্দা হ্যা”। আলী আব্বাস জাফর লিখিত ও পরিচালিত ২ঘন্টা ৪১ মিনিটের সিনেমাটিতে দর্শক এক মিনিটের জন্য অবকাশ পাবেনা অন্যকিছু ভাববার। কারণ টানটান ঘটনা, রোমান্স, অ্যাকশান, ও অ্যাডভান্সার সমন্বয়ে অভিনেতা অভিনেত্রীদের উৎকৃষ্ট অভিনয়।

ইকড়িতে ভারতীয় ২৫জন ও পাকিস্থানের ১৫জন নার্সদের আইএসসি টেররিস্ট দের হাত থেকে মুক্ত করার জন্যই মূলত টাইগার এবং জোয়ার আবির্ভাব। টাইগার(সালমান) ভারতীয় RAW এজেন্ট এবং জোয়া (ক্যাটরিনা) EX-ISI এজেন্ট । বিশ্বের দরবারে দেশের নাম অক্ষুণ্ণ রাখার জন্য ৮বছরের আত্মগোপন ভুলে আবার যুদ্ধের ময়দানে আসা নায়ক নায়িকার, সরি স্বামী-স্ত্রীর। এবং যুদ্ধ জয় ও খলনায়ক আবু উসমান কে নিহত করে আত্মগোপন করানোই পরিচালকের মূল গ্রাটিফাই।

সিনেমাটিতে “টাইগার জিন্দা হ্যা” তিনবার ব্যবহার করা হয়েছে তিনটি চরিত্রের সংলাপে। সেখানেই টাইটেল “টাইগার জিন্দা হ্যা”। কিন্তু “এক থা টাইগার” এবং “টাইগার জিন্দা হ্যা” সিনেমা দুটিতেই টাইগার কিভাবে ‘জিন্দা হ্যা’ সেটা একবারও দেখানো হয়নি। যদি ভেবে নেওয়া যাই অসুর শক্তিকে নাশ করার জন্য টাইগারের আগমন তাহলে জোয়া কোথায় গেল? আরেকটি জায়গাতে একটু অতৃপ্তি থেকে যায়, দর্শক যখন আবেগ নিয়ে ভাবছে ভারতীয় পতাকা ইকড়িতে উড়বে তখন পরিচালক অতি যত্নে বিষয়টি ম্যানেজ দিলেন। গাড়িতেই জাতীয় পতাকা উড়লো দুদেশের।

যদিও মহিলা ক্ষমতায়ন, মানবতা এবং দেশত্ববোধ তিনটি আলাদা আলাদা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় অতি নিপুনতার সহিত উপস্থাপনা দর্শককে মুগ্ধ করে। তাই ক্রিসমাস ও বর্ষবরণে জমজমাট শো হতেই পারে সিনে প্রেমীদের জন্য “টাইগার জিন্দা হ্যা”। সব মিলিয়ে তাই ৫ এর মধ্যে ৪ দেওয়া যেতেই পারে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট