বিষ্ণুপুরে ব্যাঙ্ক লোন শোধ না করতে পারায় আত্মহত্যা প্রৌঢ়ের


মঙ্গলবার,১৬/০১/২০১৮
986

ব্যবসার জন্য ঋণ নিয়েছিলেন এক প্রৌঢ়। আর শোধ করতে পারছিলেন না। মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন। আর তাতেই তিনি আত্মঘাতী হলেন। মঙ্গলবার সকালে তাঁর মৃতদেহ ঝুলতে দেখা গেল একটি তেঁতুল গাছে। মৃত প্রৌঢ়ের নাম ইসরাফিল মোল্লা। বয়েস ৫৫। বিষ্ণুপুরের গোতলাঘাট এলাকার সুলতানপুরের ঘটনা। স্থানীয় মানুষ সূত্রে জানা গেছে, ওই এলাকায় একটি চায়ের দোকান চালাতেন ইসাফিল মোল্লা নামের ওই প্রৌঢ়। ওই চায়ের দোকানের উন্নতির জন্য তিনি ‘বন্ধন’ নামের একটি‌ সংস্থা থেকে ২৫ হাজার টাকা ঋণ নিয়েছিলেন। সেই ঋণের টাকা শোধ করতে পারছিলেন না। কয়েকদিন আগে বাড়িতে নোটিশ আসে। তারপর থেকে ইসরাফিল বাড়ি ছাড়া ছিলেন। মানসিক দিক দিয়ে ভেঙে পড়ে ছিলেন। এদিন সকালে বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে একটি খালের পাড়ে তেঁতুল গাছে তাঁকে গলায় দড়ির ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলতে দেখেন স্থানীয় মহিলারা। তাঁরা চিৎকার করে লোকজন ডাকেন। গ্রামবাসীরা বেরিয়ে আসেন। ওই অবস্থা দেখে বিষ্ণুপুর থানায় খবর দেন। পুলিস এসে মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। পুলিসের অনুমান মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী হয়েছেন ওই প্রৌঢ়।

 

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট