কাব্যগ্রন্থ পর্যালোচনা – ‘পোড়া মাটির বাঁশি’


সোমবার,২৯/০১/২০১৮
2314

আপ্পি হোসেন:

“দেখো, আমিও ঈশ্বর হয়ে যাব/
…এ শরীর বয়ে যাবে সুজাতা কুটিরে/
সব পাপ নিজ কাঁধে বয়ে নেবে
ক্রুশবিদ্ধ শরীর আমার/
সাগরে ভাসিয়ে দেহ
আমার চৈতন্য যাবে নীল নীলাচলে/”

ঈশ্বরের বানী যেমন সৃষ্টি হয় এবং একত্রে রচিত হলে বলে ধর্মগ্রন্থ ; আর একজন কবির অক্ষরেরা যখন মলাটবন্দী হয় তখন সেটি হয় কাব্যগ্রন্থ। ‘অপূর্ব পাল’ – এই সময়ে বাংলা সাহিত্যের আকাশে এক প্রজ্জ্বলিত নক্ষত্র। কবি অপূর্ব পালের লেখা কবিতাগুলি জীবন-যাপন থেকে দুঃখ, প্রেম এবং উপলব্ধি নিয়ে সরাসরি এবং সহজেই পাঠকের হৃদয়ে পৌঁছায় এবং পাঠক মন্ত্রমুগ্ধ হয়ে যায়। যেমন “তুহিনাকে ভালবেসে” এই কবিতাটি আমার মতে আমার মত যে কোন কবিতাপ্রেমি মানুষ পড়লেই মোহিত হয়ে যাবে-

“মেঘাতুর কিন্নরে সুগন্ধি আপেলের ফুল/
বরফ চাদর গায়ে শুয়ে আছে
রাজকন্যে বহুদিন/
তুহিনাকে ভালবেসে সভ্যতা রেখে গেছে
বরফকুচি বুকে নীল নিকোটিন/
…অহল্যার মতো সেই প্রতীক্ষা পাথর/
আসে যদি কোনদিন আত্মশুদ্ধ রাজার কুমার/
…ফুটে আছে নীলদ্যুতি ফুল, মেঘের ওপার/
কুসুমের মধু নয়,
ঠোঁটে ঠোঁট শুষে নেবো নীল বিষ তার/–

ভালোবাসার কথারা এত সুমধুর এত মনোময় হতে পারে! হ্যাঁ এখানেই কবি কলমের জাদু। কবিতা পাঠ করে সিক্ত হয় পঠক, হৃদয়ে তার শীতলতা আসে তবে সে কবিতাকে ভালবাসে, অবগাহন করে,, আর যখন কবি এমন ভাবে আহ্বান জানায় তার কবিতার শব্দ-সহবাসে–

“এসো আমরা সহবাস আয়োজন করি/
সহবাস সে তো সহযাত্রারই নাম
যাত্রাপথে আনন্দ চন্দন ছাড়া আর
কি আছে নেবার/
ধূপের গন্ধে ভরে যাক রাত্রি চরাচর/
কপালে কুসুম কুমকুম
সারাগায়ে মেখে আছি তোমার শ্রীনাম
এসো,
ঘুমঘরে এবার আমরা সমাধিস্থ হই/ ”

ছত্রে ছত্রে মুগ্ধতা জড়িয়ে আছে, শব্দে শব্দে ভালবাসার কুসুম ফুটে আছে-আপনিও তার সুবাস পেতে পারেন, এমন সব কথারাও আছে যাতে উদ্বেলিত হবে আপনার চেতনা –

“গফুর মিঞার শূন্য চোখে/
চেয়ে আছি বৃষ্টি কোথায়/আয় আমিনা বৃষ্টি মেয়ে/
আয় আমিনা বৃষ্টি নিয়ে/মহেশ আমার তৃষ্ণা জমিন/ জল পেলনা/
সোনার মাটি ভিজবে বলে/
বসে আছি শূন্য মাঠে/ এই অবেলায় !/

নিপুন বুননে অসাধারণ কিছু কবিতার মায়াজালে আপনাকে জড়াবেই, আপনার মননে ভাবনার এবং ভালোলাগার আবেশ তৈরি হবে,
–“নীরবতার মতো দাঁড়িয়ে থাকা
সুপুরি গাছটাকে কুরে কুরে খাচ্ছে
কাঠঠোকরা পাখি/
ডুকরে ডুকরে কেঁদে উঠছে একাকিত্ব /
আর আমি ,
এক পরম আত্মীয়ের
পদধ্বনির আশায়
কান পেতে আছি …/”

হ্যাঁ বন্ধু, আপনিও অদ্ভুত নীরবতা নিয়ে মুগ্ধ হয়ে দাঁড়িয়ে থাকবেন এমন সব কবিতার কাছে-আসন্ন ‘কলকাতা বইমেলা ২০১৮’ উপলক্ষে প্রকাশিত হচ্ছে কবি অপূর্ব পালের এই অপুর্ব কাব্যগ্রন্থ ‘পোড়া মাটির বাঁশি’। আপনাকে সেই অপূর্ব সুর-শব্দের মায়ায় আবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানাই–
প্রকাশক : অসময় প্রকাশনী
স্টল নম্বর : ৪৩১ |

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট