ডোমকলের লড়াকু প্রতিভারা ডব্লিউবিসিএস অফিসার হওয়ার স্বপ্ন দেখছে


শুক্রবার,২৯/০৬/২০১৮
382

ফারুক আহমেদ---

গ্রামের দুই শিক্ষকের অক্লান্ত প্রচেষ্টায় ডোমকলের লড়াকু প্রতিভারা ডব্লিউবিসিএস অফিসার হওয়ার স্বপ্ন দেখছে। সমাজ সেচতেনদের দেখানো পথ অনুসরণ করে ডোমকলের প্রত্যন্ত গ্রামের শিক্ষিত যুবকরা এখন দেখছেন ডব্লুবিসিএস অফিসার হওয়ার স্বপ্ন। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উন্নতির সঠিক প্রয়োগের ফলে ও তাদের যথাযোগ্য সুযোগ দেওয়ায় তাদের স্বপ্নও বাস্তবে রূপ পাচ্ছে। বিগত কয়েক বছরে ডোমকলের কয়েকজন ডব্লিউবিসিএস অফিসার বিভিন্ন পদে নিযুক্ত হয়েছেন। যেমন, হুমায়ুন কবীর (এডিএসআর), নাসকিম বক্স (সিটিও), এম. রহমান (এসডিপিও)।

এবছর ডব্লিউবিসিএস (প্রিলি) পরীক্ষার ফলাফল বেশ নজরকাড়ার মতো। মাফিকুল ইসলামের মতো একজন স্কুল শিক্ষকের (ইংরেজি) অক্লান্ত পরিশ্রম ও অধ্যাবসায়ের ফলে প্রিলিটে সফল মোট এগারো জন (তাকে ধরে)। মাফিকুল ইসলাম ২০১৫ মেইন পরীক্ষায় সফল হয়ে ইন্টারভিউও দিয়েছিল। অপর এক মাদ্রাসার ইংরেজি শিক্ষক মাহাতাবুদ্দিন বিশ্বাস গত মেইন পরীক্ষায় সফল ও এবার প্রিলিতেও সফল। এই দুই শিক্ষকের কোচিং সেন্টারে সফল হল, রাসিকুল ইসলাম, সাহাজামান মন্ডল, আতিকুর রহমান, গালিব রৌশন, আসফাকুল্লা মন্ডল, বিভাস শীল, রুবিনা খাতুন, চঞ্চল মন্ডল ও সাইফুল ইসলাম, সকলেই ডোমকলের প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলের দরিদ্র ও পিছিয়েপড়া সম্প্রদায়ের অন্তরভুক্ত সম্প্রদায়।

তাদের চোখে এখন আধিকারিক হওয়ার স্বপ্ন। এছাড়াও ডোমকল এসডিপিও মাকসুদ হাসানের ক্লাস থেকে ও তাঁর পথনির্দেশনায় সফল হয়েছেন আরো তিনজন, সালাম সেখ, কুমকুম পারভিন ও সুপ্রকাশ সান্যাল। দরিদ্র ঘরের প্রতিভারা গাইড ও সুযোগ পেলে এভাই উঠে আসতে পারে সমাজকল্যাণকর কাজে। বাংলার বুকে সুস্থ সমজা গড়তে এরা এগিয়ে আসবেন এখন এটাই আশার আলো।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট