ভারতীয় জনতা পার্টি যা করে ইতিহাস রচনা করে, সেই ইতিহাস কে সবাই ফলো আপ করে


শুক্রবার,১৩/০৭/২০১৮
357

নিজস্ব সংবাদদাতা---

২১ জুলাইয়ের মতো লোক জমা করতে না পারলে অসম্মানিত হতে হবে। তাই চালাকি করে কলকাতার পরিবর্তে তুলনামূলকভাবে ছোটো মেদিনীপুর কলেজ মাঠকে মোদির সভার জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে। মানস ভুঁইঞার এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্য সহ সভাপতি বিশ্বপ্রিয় রায়চৌধুরী জানান ২১ শে জুলাই ওনারা কত লোক হয় ২লাখের বেশী হয়নি কোন দিন ,এবার দেখবেন তাও কমে যাবে । আর ভারতীয় জনতা পার্টির,নরেন্দ্র মোদী তখন মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন প্রধান মন্ত্রী ছিলেননা বিগ্রেডে সভা করেছেন সেখানে ৭ লাখ লোক উপস্হিত ছিলেন সেখানে ।

ভারতীয় জনতা পার্টি যা করে ইতিহাস রচনা করে,সেই ইতিহাস কে সবাই ফলোআপ করে । পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি এখন এক নম্বর পার্টি ,পশ্চিম বঙ্গে বিজেপি যা করবে ,বিজেপির দেখা দেখি অন্য সব পার্টি সে সরকারী হোক আর বেসরকারি হোক তারা তারা বিজেপির পিছনে দৌড়চ্ছে । কিন্তু দুর্ভাগের বিষয় পিছনে তারা দৌড়াবে আগামী ২০১৯ তারা আরো পিছিয়ে যাবেন আর ২০২১ বাংলায় দেখা যাবে বিজেপি ছাড়া আর কিছু নেয় ।২০১৯ থেকে তার তার শুভ সুচনা হবে ।

সংবাদিদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি আরো জানান মুখ্যমন্ত্রী নিজেই সবজায়গায় এডমিট করছে তার দল তার লোকেরা চুরি করছে। তার সরকার তার সাথে যুক্ত আছে ,মুখ্যমন্ত্রী জমি মাফিয়া কারা সেটা মুখ্যমন্ত্রী ইন্ডিকেট করুক তাদেরকে ধরলে দেখা যাবে তৃনমূলের হাতা খুন্তি ,বেলচা ,চামচা সবাই ধরা পড়ে গেছে । বিজেপির তো জমি মাফিয়া নেই তাহলে তো মুখ্যমন্ত্রী চিৎকার করে বেড়াত সব জায়গায় । মুখ্যমন্ত্রী বারবার এডমিট করছে তার দল দুর্নিতী গ্রস্হ ,শুধু দুর্নিতী গ্রস্হ নয় খুনের দল ,আমরা বলতে চায় মুখ্যমন্ত্রী খুনের রাজনীতি বন্ধ করুন ,আর যদি না করেন আমরা বাংলায় শান্তি চায় ,আপনারা যদি শান্তি ফিরিয়ে আনার কথা না শুনবেন ,আপনারা যদি অশান্তির পথে জবাব চান তখন কিন্তু এটা কেরলের মত হবে । তখন কিন্তু আপনি ও আপনার দল কাউকে কিন্তু খুঁজে পাওয়া যাবেনা ।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট