ঝাড়গ্রামে নতুন বিশ্ববিদ্যালয়, আদিবাসী দিবসের সভায় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর


বৃহস্পতিবার,০৯/০৮/২০১৮
136

বাংলা এক্সপ্রেস---

ঝাড়গ্রাম:– বৃহস্পতিবার বিশ্ব আদিবাসী দিবসে ঝাড়গ্রামে সভা করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর সেই সভায় দাঁড়িয়ে তিনি আদিবাসীদের শিক্ষার উন্নয়নে তাঁর পরিকল্পনার কথা জানান। তিনি যে রাজ্যে বাংলা ভাষার পাশাপাশি অলচিকি ভাষাকেও গুরুত্ব দিতে চলেছেন সেটাও বুঝিয়ে দেন ঝাড়গ্রামের সভায় দাঁড়িয়ে।

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আমরা অনেক ক্যাম্প তৈরি করছি। আমরা অলচিকিতে বই তৈরি করেছি। আমরা অলচিকির অনেক স্কুল তৈরি করেছি। ঝাড়গ্রাম নতুন জেলা কারা তৈরি করেছিল আমরা তৈরি করেছিলাম। ঝাড়গ্রামে নতুন সুপারস্পেশালিটি হাসপাতাল কারা তৈরি করেছে আমরা তৈরি করেছি। নয়াগ্রামে স্টেডিয়াম কারা করেছে আমরা তৈরি করেছি। জঙ্গলকন্যা সেতু কারা তৈরি করেছে আমরা তৈরি করেছি। মনে রাখবেন কলেজ থেকে শুরু করে হাসপাতাল থেকে শুরু করে পাকা রাস্তা থেকে শুরু করে আইসিডিএস থেকে শুরু করে কিষাণমান্ডি থেকে শুরু করে টোটালটাই আমরা করেছি।

এরপরই মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা-আজকে ঝাড়গ্রাম পাচ্ছে নতুন বিশ্ববিদ্যালয়। আমি তার ঘোষণা করে যাচ্ছি। আগামিদিন তৈরি হবে বিশ্ববিদ্যালয়। আর এখানকার ছেলেমেয়েদের বাইরে যাওয়ার প্রয়োজন নেই। তাছাড়া আরও দুটি অলচিকি স্কুল ঝাড়গ্রামে তৈরি করে দেব। আরও দুটি তৈরি করে দেব বাঁকুড়ার খাতরা মহকুমায়। আরও দুটি তৈরি করে দেব পুরুলিয়া জেলায়, যেখানে আদিবাসী ভাইবোনেরা থাকে। আমি চাই অলচিকিতে আরও শিক্ষক নিয়োগ করার জন্য। যাতে অলচিকি স্কুল্গুলি আরও ভালো করে চলতে পারে। কিছুই ছিল না। এখন পঞ্চম থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত হয়ে গিয়েছে। আস্তে আস্তে একাদশ-দ্বাদশ হবে।

মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিক, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় হবে। আপনাদের ভাষার বই তৈরি হয়ে যাবে বই তৈরি হয়ে যাবে। মমতা বলেন,”এত কিছুর পরেও কিছু লোক আছে যারা আদিবাসীর সঙ্গে  মাহাতোর ঝগড়া লাগায়, কখনো হিন্দুর সঙ্গে মুসলমানের ঝগড়া লাগায়, কখনো খ্রিস্টানের সঙ্গে আদিবাসীর ঝগড়া লাগায়। এই ঝাড়গ্রামে কি ছিল বাঁকুড়ায় কি ছিল রাস্তায় চলতা পারত না মানুষ। পুরুলিয়ায় কি ছিল রাস্তায় বেরোলেই বাঘে খেয়ে নেবে মাওবাঘ। আজ সেখানে শান্তি ফিরে এসেছে। কত ছেলেমেয়ের চাকরি হয়েছে। সাঁওতালি অলচিকি ভাষাতেও আমরা ডবল্যুবিসিএস পরীক্ষা নিচ্ছি। আজ  আদিবাসী ভাইবোনরা উচ্চ শিক্ষা করতে ১০ লাখ টাকা ঋণ দেয়। আর বিদেশে পড়তে গেলে ২০ লাখ টাকা দেয়। কোথায় পাবেন এই সুযোগ। আজ ২৪টি নতুন বাস দেওয়া হল শুধুমাত্র ঝাড়গ্রাম জেলার জন্য।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট