“গৌড়, মুর্শিদাবাদ ও পলাশীকে নিয়ে ট্যুরিস্ট সার্কিট গড়ে বাংলার পর্যটনকে বিশ্বসেরা করতে চাই” গৌতম দেব


সোমবার,১৩/০৮/২০১৮
439

বাংলা এক্সপ্রেস---

বহরমপুরঃ  মুর্শিদাবাদে পর্যটন শিল্পের উন্নয়ন নিয়ে এইদিন তিনি জেলাশাসক পি উলগানাথন, বহরমপুর পুরসভার চেয়ারম্যান নীলরতন আঢ্যের সঙ্গে একটি বৈঠক করেন। গৌড়, মুর্শিদাবাদ ও পলাশীকে নিয়ে ট্যুরিস্ট সার্কিট গড়ে বাংলার পর্যটনকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরে বিশ্বসেরা করতে চাই। রবিবার বহরমপুরে সরকারী ট্যুরিস্ট লজে একটি সাংবাদিক বৈঠকে জানালেন রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেব। তিনি বলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের পর্যটন শিল্পের উন্নয়নকে পাখির চোখ করে পর্যটন দপ্তরকে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছেন। রাজু জুড়ে ট্যুরিস্ট স্পটগুলিতে উন্নয়নের কাজ হচ্ছে। দুর্গাপুরে ২২ কোটি টাকা খরচে  SHIM বা স্টেট হোটেল ম্যানেজমেন্ট ইন্সিটিউট চালু করা হয়েছে।

এই প্রতিষ্ঠানে শর্ট ও লং ট্রামে দুটি কোর্স চালু হয়েছে। ৩ বছরের লং টার্মে চলতি বছরে ৬০ জন পড়ুয়া ভর্তি হয়েছে। আগামী বছরে ১২০ জন পড়ুয়া ভর্তি হতে পারবেন। সর্ট টার্মে ১৫০ জন পড়ুয়া ভর্তি হতে পারবেন বলে জানান তিনি।  মুর্শিদাবাদের মতিঝিল পার্কের ভূয়সী প্রশংসা করে বলেন, মতিঝিল পার্ককে পর্যটকরা পছন্দ করছেন। শিলিগুড়িতে ভোরের আলো নামে দেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় ট্যুরিস্ট হাব তৈরি হবে। কোচবিহার ও নবদ্বীপকে হেরিটেজ ঘোষণা করে কাজ শুরু হয়েছে। এই বিষয়ে খড়গপুর আইটিআই কে নলেজ পার্টনার হিসেবে নেওয়া হয়েছে।মুর্শিদাবাদে আসা পর্যটকদের এখানে থেকে ঘুরে দেখার জন্য  পর্যটন দফতর আরও কিছু কাজ করতে চায়। পর্যটন শিল্পে উন্নতনির জন্য নদী পথকে ব্যবহার করা হবে বলে জানান তিনি। এর জন্য ইতিমধ্যেই ৬ টি হাউসবোট নিয়ে আসা হয়েছে। পুজোর আগেই দুটি হাউস বোট চালূ করা হবে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট