ভূতের আতঙ্ক রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ে


বুধবার,২২/০৮/২০১৮
381

পিয়া গুপ্তা---

রায়গঞ্জ: রাত তখন ১২ টা।প্রতি দিনের মতোই পাহারায়রত ছিলেন রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের নৈশপ্রহরীগণ।হঠাত্ইআচমকাই কেঁপে উঠলো রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের  দরজা জানালা। কে যেন চুপিসারে  দরজা জানালা দিয়ে ডাকে যাচ্ছে ।কখনো দরজা জানালা ভাঙার শব্দ ,কখনো বা জোরে জোরে ছেলে ও মেয়ের চিত্কার রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর থেকে।

নানান শব্দ ভয়ে জরোসরো হয়ে  রামনাম জপ করতে করতেই একবুক সাহস নিয়ে নারায়ণ  ফোন করলো বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য কর্তাব্যক্তিদের । মঙ্গল বার রাত ১২ টা নাগাত এমনিভুতের আতঙ্ক ছড়ালো উত্তর দিনাজপুর জেলার  রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ে। এই ঘটনায় এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে রায়গঞ্জ জুড়ে । খবর পেয়ে রায়গঞ্জ বিশ্ব বিদ্যালয়ে ছুটে আসে রায়গঞ্জ থানার পুলিশ ও দমকল বাহিনী। জানা গিয়েছে, প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার রাতে রায়গঞ্জ বিশ্ব বিদ্যালয়ে নৈশপ্রহরী হিসেবে পাহারা দিচ্ছিলেন নারায়ন সাহা ও তার সঙ্গীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের পাহারায় ছিলেন তারা।  রাত ১২ টা নাগাদ  তারা আচমকাই বিশ্ববিদ্যালয়ের দরজার সশব্দে আঘাত করার জোরে আওয়াজ শুনতে পান। পাশাপাশি দরজা ভাঙার আওয়াজ শুনতে পান তারা।

নৈস্যপহরিরা সেখানে গিয়ে কিছু না দেখতে পেলেও কেমেস্ট্রি রুমে থেকে ছেলে ও মেয়ের আওয়াজ শুনতে পান। সেখান থেকে ফিরে এসে সঙ্গে সঙ্গে নৈশপ্রহরী নারায়ন বাবু বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্তাব্যক্তিদের খবর দেন। তারা এসেও ওই একই আওয়াজ শুনতে পান। খবর দেওয়া হয় রায়গঞ্জ বিশ্ব বিদ্যালয়ে পাশে থাকা দমকল বাহিনীসহ রায়গঞ্জ থানার পুলিশকে।  দমকল বাহিনী ও পুলিশ বিশ্ব বিদ্যালয়ে ছুটে আসে। পুলিশ বা দমকলের আধিকারিকেরা   কোন ধরনের আওয়াজ শুনতে না পেয়ে তারা ফিরে আসেন। এই ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে বিশ্ব বিদ্যালয় চত্বরে। পাশাপাশি আতঙ্ক রয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের নৈশপ্রহরীরা। নারায়ন সাহা নামে এক নৈশপ্রহরী জানিয়েছেন, এর আগে এই ধরনের ঘটনা কোন দিনও ঘটে নি। এই ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে আছি।

এবারবাংলা এক্সপ্রেসআপনার মোবাইলে, ডাউনলোড করুন বাংলা এক্সপ্রেস ফ্রি মোবাইল অ্যাপ 

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট