সপ্তপদি ভর্তা


মঙ্গলবার,১৮/০৯/২০১৮
131

সাবরিনা খান---

সপ্তপদি ভর্তা

আমার মনে হয় এমন কোন বাঙ্গালি নেই যে ভর্তা পছন্দ করেনা। তাই আজকের আয়োজন ভর্তা দিয়ে। আজ একসাথে ৭টি ভর্তা করব।

চিংড়ি ভর্তা

১.চিংড়ি মাছ- আধা কেজি। ২.হলুদ-সামান্য। ৩.পিয়াজ কুচি- ১/৪ কাপ। ৪.ভাঁজা শুকনা মরিচ- ৪/৫ টি। ৫.কাঁচা মরিচ কুচি-৩/৪টি। ৬.সরিষার তেল- প্রয়োজন মত। ৭.লবন- প্রয়োজন মত। ৮.সয়াবিন তেল প্রয়োজন মত।

প্রণালী- প্যানে সয়াবিন তেল দিয়ে তাতে সামান্য হলুদ ও লবন দিয়ে চিংড়ি মাছ দিয়ে দাও। মাছে পানি দেওয়ার দরকার নাই। মাছে যা পানি থাকবে তাতেই সিদ্ধ হয়ে যাবে। পানি ‍শুকিয়ে গেলে ভালভাবে ভাঁজা ভাঁজা করে নাও। সিল পাটায় আধা বাটা করে নাও। মিহি হবে না। এবার প্যানে তেল দিয়ে পিঁয়াজ সাঁতলে নাও। শুকনা মরিচ সিলপাটায় মিহি করে বেটে নাও। এবার চিংড়ি মাছের সাথে পিঁয়াজ, শুকনা মরিচ, লবন, কাঁচামরিচ ও সামান্য সরিষার তেল দিয়ে মাখিয়ে নাও।

কালিজিরা ভর্তা

১.কালিজিরা- ১/৪ কাপ। ২.রসুন কুঁচি- ৬/৭ কোয়া। ৩.কাঁচা মরিচ কুঁচি- ৩/৪টি। ৪.লবন- পরিমান মত। ৫. সরিষার তেল- পরিমান মত।

প্রণালী- প্যানে কালিজিরা ভালমত টেলে নাও। এবার প্যানে তেল দিয়ে তাতে রসুন ও কাঁচামরিচ কুঁচি ভালমত টেলে নাও। এবার সব উপকরণ সিল পাটায় বেটে নাও। লবন ও সরিষার তেল দিয়ে মাখিয়ে নাও।

আলুভর্তা

১.আলু – ৪/৫টি। ২.পিঁয়াজ কুঁচি- ১/৪ কাপ। ৩.শুকনা মরিচ- ৪/৫ টি। ৪.সরিষার তেল- পরিমান মত।

প্রনালী- আলু সিদ্ধ করে গরম থাকতেই ম্যাশ করে ফেলতে হবে যেন আঠালো হয়। শুকনা মরিচ ভেঁজে নাও। পিঁয়াজ কুচি ও শুকনা মরিচ খুব ভালমত চটকে নাও। লবন দাও। তেল দিয়ে আলু ভালোভাবে  মেখে নাও।

বেগুন ভর্তা

১.বেগুন- বড় একটি। ২.পিঁয়াজ কুঁচি- ১/৪ কাপ। ৩.কাঁচা মরিচ কুচি-৫/৬টি। ৪.সরিষার তেল- প্রয়োজন মত। ৫.লবন- প্রয়োজন মত।৬. ধনেপাতা কুঁচি- ১/৫ কাপ।

প্রণালী- বেগুনে তেল মেখে চুলায় অল্প আঁচে পুড়িয়ে নাও। এবার খোসা ছাড়িয়ে ভালমত ভর্তা করে নাও। সব উপকরণ ভালমত চটকে ভর্তা করা বেগুনের সাথে মিশিয়ে নাও।

ডালের বড়ি ভর্তা

১.ডালের বড়ি- ১০/১২ টি। ২.পিঁয়াজ কুচি- ১/৪ কাপ। ৩.ভাঁজা শুকনা মরিচ- ৪/৫ টি। ৪.সরিষার তেল- প্রয়োজন মত। ৫.সয়াবিন তেল- পরিমান মত।

প্রণালী-ডালের বড়ি গুলি প্যানে তেল দিয়ে কড়া করে ভেঁজে সিলপাটায় গুড়া করে নাও। সব উপকরণ ভালমত চটকে ভর্তা করা বড়ির সাথে মিশিয়ে নাও।

চ্যাঁপা শুঁটকি ভর্তা

১. চ্যাঁপা শুঁটকি মাছ- ১৫/১৬ টি। ২.পিঁয়াজ কুচি- ১/৪ কাপ।৩. রসুন কুঁচি- ৬/৭ কোয়া। ৪.কাঁচা মরিচ কুঁচি- ৩/৪টি। ৫.লবন- পরিমান মত। ৬.জিরা-সামান্য এক চিমটি। তেল- সয়াবিন ও সরিষা।

প্রণালী- প্রথমে চ্যাঁপা শুঁটকি মাছ ভালমত তেল বিহিন টেলে নিন। এবার প্যানে জিরা ফোড়ন দিয়ে পিঁয়াজ, রসুন ও কাঁচা মরিচ কুঁচি দিয়ে সাঁতলে নাও। এবার সব উপকরণ সিল পাটায় বেটে নাও। সরিষার তেল দিয়ে মাখাও।

রুই মাছের গাদার ভর্তা

১. রুই মাছের গাদা- ৪/৫টি। ২.পিঁয়াজ কুচি- ১/৪ কাপ। ৩.আদা ও রসুন বাটা- ১ টেবিল চামচ। ৪.কাঁচা মরিচ কুঁচি- ৩/৪টি। ৫.লবন- পরিমান মত। ৬.ধনেপাতা কুঁচি- ১/৫ কাপ। ৭.সরিষার তেল। ৮. হলুদ- সামান্য

 

প্রণালী- রুইমাছের গাদা সামান্য লবন, হলুদ ও আদা ও রসুন বাটা দিয়ে সিদ্ধ করে নাও। এবার মাছের কাঁটা বেছে তাতে সব উপকরণ দিয়ে মাখিয়ে নাও।

সাবরিনা খান

 

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট