আশাভবন সেন্টারের ষষ্ঠ বর্ষ দূর্গোৎসব


বৃহস্পতিবার,১১/১০/২০১৮
196

বাংলা এক্সপ্রেস ---

আক্তারুল খাঁন, উলুবেড়িয়া: হাওড়া জেলার উলুবেড়িয়া থানার কাটিলায় ষষ্ঠ বর্ষ দূর্গোৎসব অনুষ্ঠিত হবে ১২_১৯ অক্টোবর পর্যন্ত এই প্রয়াস নিয়েছে আশা ভবণ সেন্টারের পি ডাব্লু ডি ফোরাম আয়োজিত দূর্গোৎসব পূজার থিম, অন্তর্ভূক্তি করণ সমাজ , দেশের বিভিন্ন স্থানের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মেয়েরা এখানে আবাসিক হিসেবে থেকে শিক্ষা ,স্বাস্থ্য ,ক্রীড়া , সাংস্কৃতিক, কর্ম শিক্ষা নিয়ে সমাজের মূল শ্রতে ফিরছে পরিবার জীবনে সমাজে প্রতিভা বিকাশের মাধ্যমে । এই মেয়েরাই পূজা পরিচালনা করেছেন পুতুল মাইতি জানালেন এখানে বিভিন্ন ধরনের বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন মেয়েরা থাকে তারা স্বাভাবিক ভাবেই বাইরে চলা ফেরা ওঠা বসা করতে নানান রকম শারীরিক সমস্যা থাকায় আমরা আমাদের মতো করে এখানের আবাসিক মেয়েরা সারা বছরই সমস্ত ধর্মের অনুষ্ঠান করে থাকি । সেন্টারের পরিচালক জনমেরী বাড়ুই আমাদের প্রতিনিধিকে জানান, স্মরণাতীত কাল থেকে আমাদের দেশের সমাজ ব্যবস্থা জাতী ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে দ্বীধাবিভক্ত জাতীগত ভেদাভেদ অস্পৃশ‍্যতা বিশেষত বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন পুরুষ ও নারী এমনকি শিশু দের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণ আমাদের এক দেশ এক জাতী গঠনে গর্বের ভারতবর্ষের মহান আদর্শের মূলে আঘাত করিতেছে সমাজের দরিদ্র প্রান্তিক জনগণের মধ্যে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন পুরুষ ও নারী, শিশুদের স্বশক্তিকরণে দিবারাত্রি নিবেদিত অগ্রনী ভূমিকা পালন করে আসছে বিশ্বের, কেন্দ্রের,রাজ‍্যের বে সরকারি ও ব‍্যাবসায়ী প্রতিষ্ঠান,ব‍্যাক্তি বিশেষের পুরষ্কার ও সার্বিক সহযোগিতা পেয়ে আসছে এখন কার মেয়েরা ও জেলা রাজ্য কেন্দ্রের ক্রীড়ায় প্রতিভা বিকাশে ও চর্চায় পুরষ্কার পেয়েছে । আমরা ও সেন্টারের পরিচালনকমিটি সহ কর্মীরা অনুভব করে যে দেশের মানবশক্তির এক বড়ো অংশকে জাতী ধর্ম বর্ণ ও বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন র অজুহাতে বিচ্ছিন্ন করিয়া রাখিলে দেশের সার্বিক উন্নয়ন সম্ভব নয় কারণ খুঁজতে খুঁজতে গিয়ে রাষ্ট্রসংঘের সনদ আইন নিয়ম অনুযায়ী সমস্ত মানুষকে মূলতঃ বিশেষ চাহিদা সম্পন্নদের অন‍্যভাবে সক্ষমরা সমানাধিকারের ভিত্তিতে বৈষম্য দূর পরিহার করে সমস্ত স্তরে সব জায়গাতেই অংশগ্রহণের সুযোগ সুবিধা প্রসারিত করলে তবেই দেশের দশের উন্নতি হবে। এই সকল চিন্তা ধারা প্রচার ও প্রসার লাভ করণের লক্ষ্য নিয়ে আশা ভবণ সেন্টারের পি ড্বালু ডি ফোরাম আয়োজিত ষষ্ঠ বর্ষ দূর্গোৎসবের থিম মূল লক্ষ্য উদ্দেশ্য হচ্ছে একদেশ একজাতী অন্তর্ভূক্তি করণ সমাজ ব্যবস্থা আগত অতিথি দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে উঠুক সার্বিক সচেতনতার উদয় হোক পূজা প্রাঙ্গণের আকর্ষণ শিক্ষা, পরিবেশ বান্ধব প্রচারাভিযান থেকে। আমাদের বিশ্বাস এই শিক্ষা ও সচেতনতামূলক কার্যক্রমের মাধ্যমে আপনি আপনারা সবাই সামিল হয়ে সর্বস্তরের জনগণের কাছে ও মাধ্যমে প্রচার করে দেশের সকল মানুষের মননে হৃদয়ে অন্তভূক্তি করণের প্রয়াসে আমাদের সমাজ গঠিত হবে আর গর্বের ভারতবর্ষ আবার জগৎসভায় শ্রেষ্ঠ আসন লবে। আগামী দিন তৃতীয়ার পুণ‍্যলগ্নের বিকালে উলুবেড়িয়া দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক ও পশ্চিম বঙ্গ সরকারের অধীনে স্বরোজগার কর্পোরেশন লিমিটেড এর চেয়ারম্যান পুলক রায় দূর্গোৎসবের উদ্বোধন করবেন, বাহুবিশিষ্ট অতিথি পূজানুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন ও অংশগ্রহণ করবেন। আশা ভবণ সেন্টারের সম্পাদীকা মমতা ময়ী শুকেশী বাড়ুই বলেছেন বিশ্ববাংলার সার্বজনীন দূর্গা পূজা সকলের আগমন ও সহযোগিতা ধন্য হবে। পূজায় নানান ধরনের মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও শিন্নী প্রশাদ ভোগ থাকছে ভক্ত সকলের জন্য।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট