সাইবার প্রতারকদের ফাঁদে পড়ে টাকা খোয়ালেন


রবিবার,১১/১১/২০১৮
483

বাংলা এক্সপ্রেস---

এবার সাইবার প্রতারকদের ফাঁদে পড়ে টাকা খোয়ালেন ইন্ডিয়ান ইন্সটিটিউট অফ কেমিক্যাল বায়োলজির অবসরপ্রাপ্ত কর্মী। অশোক পুততুন্ড নামে ওই কর্মী হুগলির ডানকুনির বাসিন্দা। তাঁর অভিযোগ, ৪ নভেম্বর তাঁর SBI অ্যাকাউন্ট থেকে প্রায় ২ লাখ টাকা তুলে নেওয়া হয়। এরপরই তিনি অ্যাকাউন্ট ব্লক করে দেন। কিন্তু তারপরেও ৯ নভেম্বর অশোকবাবুর অ্যাকাউন্ট থেকে ফের ১৯,৯৯০ টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে।

ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট ব্লক হওয়ার পর কীভাবে ফের সেখান থেকে টাকা তুলে নেওয়া হল তার উত্তর দিতে পারেনি ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। ব্যাঙ্কের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, Paytm ও Bhim App ব্যবহার করে টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু অশোকবাবু জানিয়েছেন, তিনি Paytm বা Bhim App ব্যবহার করেন না। এবিষয়ে ডানকুনির SBI শাখা, ডানকুনি পুলিশ স্টেশন এবং লালবাজার ব্যাঙ্ক ফ্রড সেকশনে লিখিত অভিযোগ করেছেন তিনি।৪ নভেম্বর অশোকবাবুর ফোনে একটি OTP আসে। কিছুক্ষণ পর এক ব্যক্তি ফোন করে বলে ব্যাঙ্ক থেকে মাইক্রোচিপ সহ নতুন ATM কার্ড দেওয়া হচ্ছে এবং এজন্য অশোকবাবুকে প্রসেসিং ফি জমা দিতে হবে।

ফি জমা করার জন্য ওই ব্যক্তি অশোকবাবুর কাছ থেকে OTP টি জানতে চায়। অশোকবাবু OTP ওই ব্যক্তিকে জানানোর পরেই তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে ৪৯,৯৯০ টাকা করে দু’বারে প্রায় এক লাখ টাকা তুলে নেওয়া হয়। তার পরদিনই অর্থাৎ ৫ নভেম্বর দু’বারে আরও এক লাখ টাকা তুলে নেওয়া হয়। ব্যাঙ্কে গিয়ে লিখিত অভিযোগ করেছিলেন অশোকবাবু। ৭ নভেম্বর লালবাজারের ব্যাঙ্ক ফ্রড সেকশনেও অভিযোগ জানানো হয়।

কিন্তু তারপরেও গত শুক্রবার তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে ১৯,৯৯৯ টাকা তুলে নেওয়ার মেসেজ আসে। অশোকবাবুর প্রশ্ন, ব্যাঙ্ক তাঁকে জানিয়েছিল অ্যাকাউন্টের সমস্ত লেনদেন ব্লক করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তারপরেও কীভাবে তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা তুলে নেওয়া হল? তা ছাড়া একবার OTP দিয়ে কীভাবে তিনবার টাকা তোলা হল? কোনও প্রশ্নেরই স্পষ্ট উত্তর দিতে পারেনি SBI ব্যাঙ্কের ডানকুনি শাখার জেনেরাল ম্যানেজার।

অশোকবাবুর ছেলে অঙ্কুর বলেন, “ব্যাঙ্কের কর্মীদের যোগসাজশেই জালিয়াতি হয়েছে। ডিজিটাল ইন্ডিয়া হচ্ছে, কিন্তু কী করে ভরসা করব? প্রথমে এক লাখ টাকা কেটে নেওয়ার পরই অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার জন্য ব্যাঙ্কে জানানো হয়েছিল। তারপরও কীভাবে আবার টাকা কেটে নেওয়া হল? ব্যাঙ্ক গাফিলতি ঢাকতে সাফাই দিচ্ছে। আমরা চাই এই জালিয়াতির সঙ্গে যারা যুক্ত তারা শাস্তি পাক।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট