বৃদ্ধা মাকে মারধর করে বাড়ীর দলিল আদায়ের চেষ্টা


রবিবার,২৫/১১/২০১৮
264

বাংলা এক্সপ্রেস---

শুক্রবার চন্দননগর একুশ নং ওয়ার্ডের দশভুজা তলার বাসিন্দা পূর্ণিমা ঘোষ নামে বৃদ্ধা মাকে মারধর করে বাড়ীর দলিল আদায়ের চেষ্টা করার অভিযোগ উঠেছে চন্দননগর একুশ নং ওয়ার্ডের এক তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীর তারক ঘোষের  বিরুদ্ধে। এলাকার বাসিন্দা ও পুলিশের সূত্রে জানা গেছে বৃদ্ধা মাকে মারধর করে বাড়ীর দলিল আদায়ের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে বৃদ্ধার একমাত্র পুত্র তারক ঘোষের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান ঐ বৃদ্ধা মা পূর্ণিমা  ঘোষ।

চন্দননগর একুশ নং ওয়ার্ডের  দশভুজা তলার বাসিন্দা ঐ বৃদ্ধার পূর্ণিমা ঘোষ আরো অভিযোগ করেছেন। আমাকে মাস কয়েক ধরে এবং জগদ্ধাত্রী পূজোর পঞমীর দিন আমার উপর উক্ততো করে মারধর করে আমার ছেলে তারক। এমনকি আমার মুখে কাপড় ঢুকিয়ে দিয়ে আমাকে পিঠে, হাতে,পায়ে মারধর করে। এই ছেলের অত্যাচার সজ্জো করতে না পেরে আমি আজ থানায় লিখিত ভাবে অভিযান জানাই।এদিন বৃদ্ধা তারক ঘোষের মা পূর্ণিমা ঘোষ  চন্দননগর থানায় অভিযোগ দায়ের করতে এসে বলেন।আমার এত বয়স হয়েছে তবুও আমি অপরের বাড়িতে কাজ করে রোজগার করি।

কিন্তু আমার অতো বড় একমাত্র ছেলে রোজগার দূরের কথা সকাল ও বিকালে তৃণমূল 21নং ওয়ার্ডের অফিসে বসে থাকে। আমার রোজগার থেকেই তাদের সংসার চলে। বাড়ীর দলিল ও জমি নিজের নামে করে নেওয়ার জন্য আমাকে প্রায় প্রতিদিনই না না অজুহাতে মারধর করে আমার ছেলে তারক ঘোষ। চন্দননগর পুলিশ কমিশনারেটের চন্দননগর থানার পুলিশের সূত্রে জানা গেছে বৃদ্ধা মা অভিযোগের উপর তাঁর ছেলেকে থানায় ডাকা হবে। অন্যদিকে পাড়া বাসিন্দা সমর মৌলিক ও অন্যান্য বাসিন্দারা জানান। তারক প্রায়ই তার মা পূর্ণিমা ঘোষ কে মারধর করে। আমরা অনেকবার বোঝানোর চেষ্টা করি এমনকি তৃণমূল পার্টি অফিসে বসিয়ে মাকে মারধর করবার জন্য বোঝানো হয়ে থাকে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট