পিঠে বইয়ের বোঝা নিয়ে ক্লান্ত শৈশব 


মঙ্গলবার,২৭/১১/২০১৮
372

বাংলা এক্সপ্রেস---

সকাল হলেই ঘুম থেকে উঠে স্কুলের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় প্রতিদিন হাজারো শিশু। পিঠে অতিরিক্ত বইয়ের বোঝা নিয়ে জেরবার শিশুরা। বাড়ি ফিরে হোম ওয়ার্ক এর চাপে হারিয়ে যাচ্ছে ছেলেবেলা। প্রতিদিনের রুটিন মেনে চলছে রোজনামচা। সব মিলিয়ে দেখা যায় বেসরকারি স্কুল গুলিতে একটি ছাত্র বা ছাত্রীর ব্যাগের ওজন প্রায় ৩ থেকে ৫ কেজি। যা বয়ে প্রতিদিন তারা বিদ্যালয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। অনেক ছাত্র ছাত্রীর কাছে এ এক যেন অসহ্য যন্ত্রণাদায়ক। এই বইয়ের বোঝা নিয়ে চলতে চলতে তারা ক্লান্ত হয়ে পরছে।

একটি সমীক্ষা থেকে এই উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য, এই সমীক্ষা থেকে জানা যায় যে এর ফলে প্রতিনিয়ত বিপন্ন হচ্ছে শৈশব, মানসিক চাপ পরছে শিশুমনে, হারিয়ে যাচ্ছে শৈশব। এইদিন এক নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে যে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেনীর শিশুদের বাড়ির কাজ দেওয়া যাবে না। প্রতিদিন রুটিন মাফিক বইয়ের অতিরিক্ত বই আনতে বলা যাবে না। শিশুমনে যাতে কোন প্রভাব না পরে এমন কিছু উদ্যোগ্ নিতে হবে। অনেক শিশুরা জানায় যে এই বইয়ের বোঝা নিতে তাদের খুব কষ্ট হয়। প্রতিনিয়ত শিশুদের নিয়ে এই খবর বারবার উঠে এসেছে সংবাদের শিরোনামে। তবে নতুন এই নির্দেশিকা বেসরকারী স্কুল গুলি মেন চলে কিনা সেটাই এখন দেখার।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট