বিঘোর বেগুন১ কেজির, মন মাতাবে জেলাবাসীর


বৃহস্পতিবার,০৬/১২/২০১৮
78

পিয়া গুপ্তা---

ভাজা হোক বা পোড়া, বিঘোর বেগুনের জুড়ি নেই। একাই ১ কেজি, মন মাতাবে জেলাবাসীর। উত্তর দিনাজপুর জেলার  রায়গঞ্জ এর ভিটিয়ার হাট ও মোহোনবাটি পাইকারি বাজার বিঘোরের বেগুন। সেখান থেকেই সকাল হতেই সেই বেগুন ছড়িয়ে যায় জেলার বিভিন্ন প্রান্তে। শুধু জেলা নয়, জেলা ছাড়িয়ে কলকাতা লাগোয়া রাজারহাট-নিউটাউন এলাকা ও পৌছে যায এই বিঘোর বেগুন।জানা যায়  শীত পড়লেই বিঘোরের বেগুন আর তুলাইপাঞ্জি চালের গরম গরম ভাত। বেগুন পোড়া হোক বা ভাজা বিঘোরের বেগুন একবার খেলে না কি প্রতিবার শীতে জিভে ভাসে এর নাম শুনেই।

কয়েক বছর আগে পর্যন্ত শুধুমাত্র রায়গঞ্জ ব্লক লাগোয়া বিহারের বিঘোর এলাকায় এই বেগুন চাষ হলেও এখন এই বেগুনের চাষ হয় রায়গঞ্জ ব্লকের গৌড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার অনন্তপুর, ভিটিয়ার, দুপদুয়ার, কামারপাড়া এইসব এলাকায়। আর স্থানীয় বাসিন্দা থেকে পর্যটক, ভরা শীতে সবাই মজেছেন পেল্লায় এই বেগুনে। গড়ে ৭৫০ গ্রাম – ১ কেজি ওজন হয় এক একটি বেগুনের। দাম মান অনুসারে ২৫ – ৪০ টাকা প্রতি কেজি।

বিঘোর বেগুনের গুণের অন্ত নেই বলে দাবি স্থানীয়দের। তবে স্বাদে যে অদ্বীতিয় তা নিশ্চিত। রায়গঞ্জ এর ভিটিয়ার হাট ও মোহোনবাটি পাইকারি বাজার বিঘোরের বেগুনের আড়ত। সেখান থেকেই বেগুন ছড়িয়ে যায় জেলার বিভিন্ন প্রান্তে। বাজার করতে আসা গিন্নিরা জানালেন, ‘ভাজা হোক বা পোড়া, বিঘোর বেগুনের জুড়ি নেই।’ স্থানীয় বাসিন্দাদের একজন জানালেন, ‘শীতে আত্মীয়দের বাড়িতে এই বেগুনের ভীষণ চাহিদা। প্রতি শীতেই বেগুন কিনে পাঠাতে হয় তাদের।’ সব মিলিয়ে তুলাইপাঞ্জি আর বিঘোর বেগুনে জমজমাট শীতের পিকনিক।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট