দেশান্তবোধক গান নিয়ে ফ্লাট বিক্রির বিজ্ঞাপন, ধেয়ে আসছে প্রতিবাদের ঝড়


সোমবার,১৭/১২/২০১৮
528

বাংলা এক্সপ্রেস---

“দেশান্তবোধক গান নিয়ে ফ্লাট বিক্রির বিজ্ঞাপন, প্রতিবাদে সরব জনগণ ” যে গান আমাদের মাটির, যে গানের সাথে জড়িয়ে রয়েছে কোটি কোটি দেশবাসীর আবেগ। সেই অতিপরিচিত দ্বিজেন্দ্রলাল রায়ের গান বিকৃত করে তৈরি শ্রীরামপুর এর সোলার সিটি ফ্লাটের বিজ্ঞাপন। ইতিমধ্যে এই গানের ভিডিও প্রকাশ হতেই লজ্জায় মুখ ঢাকছে বাংলা। আবার এই গানে গলা মিলিয়েছে বাংলার প্রতিস্ঠিত শিল্পীরা।

ভারতের প্রথম জাতীয়তাবোধ এর সঞ্চারিত হয়েছিল প্রথম ধন ধান্যে পুস্পে ভরা এই গানের মাধ্যমে আর সেই গান নিয়ে এখন রমরমিয়ে চলছে ফ্লাট বাড়ির বিজ্ঞাপন। এই গানের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে একটি ভিডিও প্রকাশিত হয়েছে ইতিমধ্যেই। শুধু তাই নয় বাংলার বড় বড় সংবাদমাধ্যমে এই ফ্লাট বাড়ির বিজ্ঞাপন চলছে রাতদিন রীতিমতো। এখনও পর্জন্ত প্রতিবাদের ঝড় সেই ভাবে ধেয়ে আসেনি। এখনও কোনো বুদ্ধিজীবী এই নিয়ে একটি বাক্য খরচ করেনি।প্রশ্নটা অন্য জায়গায় ভারতমায়ের এই গান নিয়ে বিজ্ঞাপন করার আগে সেই সকল শিল্পী গুলি একবারও ভাবলো না। সত্যি হয়ত আজ একবিংশ শতাব্দীর যুগে আমরা হয়ত হারিয়ে ফেলেছি আমাদের ঐতিহ্য, আমাদের সংস্কৃতি। সভ্যতা আজ সংকট এর মুখে। যে গান স্কুল কলেজে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান গুলিতে আজও শ্রদ্ধার সাথে গাওয়া হয়।

এই গানের মধ্যে দিয়েই আমরা আমদের দেশের আবেগ কে খুজে পাই আর আজ সেই গান নিয়ে বিজ্ঞাপন করা হল। ধিক্কার জানিয়েছে ইতিমধ্যে স্কুল থেকে কলেজ পড়ুয়ারা। কিন্তু জাদের অনেক আগে মুখ খোলা দরকার ছিল তারাও আজ নিশ্চুপ। যে গান আজও আমাদের অতীত এর ইতিহাস কে মনে করিয়ে দেয়।যে গান গাইলে গা আমদের কাঁটা দিয়ে ওঠে। যে গান আমাদের রক্ত সঞ্চালন বাড়িয়ে দেয়।সেই গান বিকৃত করে তৈরি হল শ্রীরামপুর এর সোলার সিটি ফ্লাটের বিজ্ঞাপন। বছর শেষে এর থেকে বাঙালীর আর বড় পুরস্কার আর কিই বা হতে পারে। যে গান দিয়ে ভারতবর্ষের প্রতিটি মানুষ তার চোখে দেশপ্রেম জাগরিত হত। আজ সেইসব অতীত।ভারতের প্রকৃতি, ভারতের অতীত ঘটনার সাক্ষী এই গান। প্রতিথজশা এই শিল্পী দের প্রতি ইতিমধ্যে ধেয়ে আসছে প্রতিবাদের ঝড়।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট