গ্লোবাল ব্লকচেইন কংগ্রেস ২০১৮- কলকাতা


মঙ্গলবার,১৮/১২/২০১৮
3918

বাংলা এক্সপ্রেস---

ব্লকচেইন লক্ষ লক্ষ ডিভাইসে চলমান একটি বিস্তৃত বিতরণকারী বা ডাটাবেস, যেখানে তথ্য, অর্থ, শিরোনাম, কাজ, সঙ্গীত, শিল্প, বৌদ্ধিক সম্পত্তি ইত্যাদি কেবলমাত্র তথ্য নয় , নিরাপদে এবং ব্যক্তিগতভাবে সংরক্ষণ করা যেতে পারে। বিশ্বের পরের বৃহত্তম বিঘ্নিত প্রযুক্তি হিসাবে ব্লকচেনকে বিশ্বের বিশ্বব্যাপী দেখছে। আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলির মধ্যে, ২০২০ সালের মধ্যে প্রায় ৫০% ব্যাংক এই প্রযুক্তির ব্যবহার করতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে এবং আগামী কয়েক বছরের মধ্যে অ-আর্থিক সেক্টরেও ব্যাপক পরিবর্তনের সম্ভাবনা রয়েছে। চাকরির বাজারে উল্লেখযোগ্য প্রভাব ফেলতে ব্লকচেইনের আশা করা হচ্ছে, কারণ এই বিঘ্নিত প্রযুক্তির জ্ঞান শিল্পের অনেক ক্ষেত্রে উচ্চ চাহিদা রয়েছে।

অনুষ্ঠানটির উদ্দেশ্য পশ্চিম বঙ্গের ব্লকচেইন প্রযুক্তিতে জ্ঞান , কর্মশালা, সচেতনতা প্রজন্মের মাধ্যমে এবং সমস্ত অংশীদারদের জন্য একক প্ল্যাটফর্ম সরবরাহ করে – শিল্প, একাডেমী, স্টার্টআপ, কর্পোরেট, সরকার এবং বিনিয়োগকারীদের বোঝার জন্য সহযোগিতা করে একটি হোলিস্টিক ইকোসিস্টেম তৈরি করা।

এখন পর্যন্ত তথ্য প্রযুক্তি ও ইলেকট্রনিক্স বিভাগ, পশ্চিমবঙ্গ সরকার ইতোমধ্যে ২০১৭ সাল থেকে ব্লকচেইন প্রযুক্তির বিপুল সম্ভাবনা নিয়ে ৬ ই ডিসেম্বরে ২০১৭ সালের তথ্য প্রযুক্তি ও ইলেকট্রনিক্স ডিপার্টমেন্টে পশ্চিমবঙ্গে ব্লকচাইন উন্নয়নের জন্য একটি জাতীয় পর্যায়ের কৌশলগত বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়, যা দেশের সকল অংশ থেকে আয়োজন করে। এর পর, ডিপার্টমেন্টটি ব্লকচেন – ‘জেনেসিস’ -তে একটি দিনব্যাপী জ্ঞান কর্মশালায় ১৩ এপ্রিল২০১৮-এ অনুষ্ঠিত হয়। শিল্প, কর্পোরেট, এবং একাডেমী ও সরকারী খাতের প্রায় ৪০০ জন ব্যক্তি এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানটি স্বাগত জানানো হয় এবং বিভাগের প্রচেষ্টাকে সর্বসম্মতিক্রমে সকল খাতের প্রতিনিধিদের দ্বারা প্রশংসা করা হয়। এই  কর্মশালার মাধ্যমে পূর্ব ভারতের ব্লকচেইন সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টির প্রাথমিক উদ্দেশ্যটি উল্লেখ করে তাঁরা অত্যন্ত খুশি হন। এই সঙ্গে একটি বার্তাও শিল্পে প্রেরিত হয়েছিল যে, কিভাবে পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজ্যের ব্লকচেইনের চারপাশে একটি সার্বিক বাস্তুতন্ত্র গড়ে তুলতে গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করছে। ইন্ডাস্ট্রিজ থেকে বিশেষজ্ঞরা সরকারি খাতে ব্লকচেন ভিত্তিক অ্যাপ্লিকেশন বাস্তবায়নের সুযোগ নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে প্রত্যাশা করতে চেয়েছিলেন যাতে শিল্প-শিক্ষা-প্রশাসনের বৃত্তিতে ধীরে ধীরে কিন্তু ক্রমাগত সচেতনতা সৃষ্টি হয় যে পশ্চিমবঙ্গ উদীয়মান প্রযুক্তির প্রচারে হাত বাড়ায়। যেমন ব্লকচেইন এবং সরকার এই ঘটনায় সক্রিয় পদক্ষেপ গ্রহণ করছে।

উদ্যোগকে আরও এগিয়ে নিতে এবং ব্লকচাইনের বিভিন্ন দিকগুলিতে  বিকাশ ঘটানোর লক্ষ্যে, গ্লোবাল ব্লকচেইন কংগ্রেস ২০১৮ সংগঠিত হচ্ছে যেখানে ব্লকচেন বিশেষজ্ঞ, কর্পোরেট, স্টার্ট-আপ, বিশ্বব্যাপী ব্যক্তিদের প্রযুক্তি, অ্যাপ্লিকেশন, মামলাগুলি ব্যবহার এবং তাদের অন্তর্দৃষ্টিগুলি ভাগ করে নেওয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়।

তথ্যসূত্র : gbck.nltr.org

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট