গোপীবল্লভপুরে বড়দিনের জন্য কেক কেনার উৎসাহ তুঙ্গে


শনিবার,২২/১২/২০১৮
497

কার্ত্তিক গুহ---

ঝাড়গ্রাম : দেখতে দেখতে চলেই এলো বড়দিন। সাহেবের বড়দিন অনেক আগেই বাঙালির ও নিজস্ব হয়ে গেছে। আর বড়দিন মানেই কেক-পেস্ট্রি। বড়দিনে কেক-পেস্ট্রির নস্টালজিয়ায় আচ্ছন্ন হন না এমন বাঙালি খুজে পাওয়া খুবই কঠিন। ডিসেম্বরের ২১ তারিখ থেকে গোপীবল্লভপুরের পুরোনো সব্জি মার্কেট সংলগ্ন প্রিয়া কেক সেন্টারের বসেছে কেকের পসরা। আর আগে থেকে বড়দিন পালনের কেক কেনার জন্য ক্রেতাদের ভীড় জমছে কেক সেন্টারে। কেক সেন্টারে ডীম ছাড়া ভেজ কেক, চিনি ছাড়া পেস্ট্রি কেক, ফ্রুট কেক বিক্রি চলছে। ক্রেতাদের মধ্যে বেশি চাহিদা রয়েছে ফ্রুটকেকের।

এছাড়া সুলভ মূল্যে মিলছে বাহারি কেক। বড় থেকে ছোটো বাহারি কেক মিলছে গোপীবল্লভপুরে, পছন্দ সহিত কেক ওডার দিয়েও মিলছে কেক। এলাকায় পছন্দ মতো কেক হাতে পেয়ে খুশি ক্রেতারা। একটা সময় বড়দিন উপলক্ষে কেক কিনতে ঝাড়গ্রাম শহরে যেতেন অনেকেই কিন্তু এখন হাতের পাশেই কেক সেন্টার থেকে পাওয়া যাচ্ছে কেক। বড়দিন উৎসব পালনের দিনটীর অপেক্ষায় নেই অনেকেই তাই আগে থেকে বিভিন্ন পদের কেক টেস্ট করার সুযোগ হাতছাড়া করতে নারাজ সাধারন মানুষ।

প্রিয়া কেক সেন্টারের ব্যবসায়ী তাপস সিংহ বলেন গত বছরের তুলনায় এই বৎসর ক্রেতাদের ভীড় জমছে দোকানে।আগামী দু’দিনে আরো বেশি ভীড় জমতে পারে বলে আশা করছেন ব্যবসায়ী তাপস সিংহ। তাপস সিংহ বলেন ক্রেতাদের পছন্দ মাফিক কেকের পসরা রয়েছে এই বৎসর। নিরামিষ আমিষ সব ধরনের কেক রয়েছে ক্রেতাদের আর অন্য কোথাও কেক কিনকে যেতে হচ্ছেনা। গত বছর নোটবন্দির কারনে মন্দা বাজার ছিল কিন্তু এই বৎসর আগে থেকেই কেক কিনার হিড়িক লেগেছে ক্রেতাদের।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট