বিভিন্নতার মধ্যে একাত্মবোধই হল ভারতের ঐতিহ্য:প্রণব মুখোপাধ্যায়


সোমবার,২৪/১২/২০১৮
341

সাদ্দাম হোসেন মিদ্দে---

কোলকাতা:বিভিন্নতার মধ্যে একাত্মবোধই ভারতের ঐতিহ্য।সোয়াশো কোটির বিশাল জনসংখ্যার দেশ আমাদের। এখানে নানা ভাষা,নানা ধর্ম,নানা জাত পাতের লোক এক সঙ্গে বসবাস করে। আমাদের পরিচয় আমরা ভারতীয়।এই একাত্ম বোধ আমাদেরকে এক সূতোয় গেঁথে রেখেছে। ভারতবর্ষ বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন বিদেশি শক্তির শাসনের সম্মুখিন হয়েছে,কিন্ত কোন শক্তির কাছে মাথানত করেনি। কথা গুলির বক্তা প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়।রবিবার নিউটাউনের সিস্টার নিবেদিতা ইউনিভার্সিটির গ্রাউন্ডে নব্বই তম নিখিল ভারত বঙ্গ সাহিত্য সম্মেলনের উদ্ভোধন করে তিনি কথা গুলি বলেন।

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি বলেন,সুদীর্ঘ চার দশক ধরে নিখিল ভারত বঙ্গ সাহিত্য সম্মেলনের সঙ্গে আমার সম্পর্ক। ১২ বছর যাবৎ তিনি সম্মেলনের সভাপতির পদ অলংকৃত করেন বলেও জানান। প্রণব মুখোপাধ্যায় বলেন,আমি লেখক নই,ছবি আঁকতে পারিনা আর গান গাওয়ার তো কোন প্রশ্নই ওঠেনা। কিন্তু আমি একজন বাংলা সাহিত্যের পাঠক। সব ধরণের বাংলা লেখা আমাকে আকর্ষণ করে।

বাংলাদেশের বিশিষ্ট বাচিক শিল্পী হাসান আরিফ বলেন,আমাদের মহান মুক্তি যুদ্ধের সময় আমাদের এক কোটি সজনকে ভারত যেভাবে আতিথেয়তা দিয়েছিল তা কোনো দিন ভোলার নয়। ভারত বাংলাদেশের অকৃত্তিম বন্ধু উল্লেখ করে তিনি বলেন,নিখিল ভারত বঙ্গ সাহিত্য সম্মেলন দুই দেশের সেতুবন্ধন রুপে কাজ করবে।এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন,প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধান এয়ার চিপ মার্শাল অরুপ রাহা,মন্ত্রী ব্রাত্য বসু,রাজ্য সভার দুই সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য ও যোগেন চৌধুরী,চিত্র শিল্পী শুভা প্রসন্ন,সাহিত্যক সমরেশ মজুমদার,অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত,হিডকো চেয়ারম্যান দেবাশীষ সেন,পাবলিশার্স এন্ড বুক সেলার্সের সভাপতি ত্রিদীপ ভট্টাচার্য প্রমুখ।

নিখিল ভারত সাহিত্য সম্মেলন ২৩ ডিসেম্বর রবিবার শুরু হয়ে ২৫ ডিসেম্বর মঙ্গলবার শেষ হবে। প্রতিদিন সকাল ১০ টা থেকে রাত্রি ৯ টা অবধি চলবে সাহিত্য আড্ডা ও নানা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। আগামি ২০১৯ নিখিল ভারত সাহিত্য সম্মেলন অস্ট্রেলিয়াতে হবে বলে জানান সম্মেলন কমিটির সভাপতা সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্য।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট