চার মাসও হয়নি, তার মধ্যেই পদত্যাগ প্রধানের


সোমবার,০৭/০১/২০১৯
249

আক্তারুল খাঁন---

হাওড়া: শপথ গ্রহণের পরে চার মাসও কাটেনি। সেভাবে তিনি কাজও শুরু করেননি। অথচ এর মধ্যেই পদত্যাগ করে বসলেন বিরোধী শূন্য আমতা-১ নং ব্লকের চন্দ্রপুর পঞ্চায়েত তৃণমূল প্রধান। মোশারফ আলী মিদ্যা নামে পদত্যাগী প্রদানের দাবি, শারীরিক কারণে পদত্যাগ করেছি। কিন্তু স্থানীয় তৃণমূল নেতাকর্মীদের একাংশের দাবি দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের কারণেই পদত্যাগ করেছেন মোশারফ। সূত্রের খবর, পঞ্চায়েত নির্বাচনের সময় থেকেই চন্দ্রপুরে দলের দু’টি গোষ্ঠীর মধ্যে লড়াই চলছে। একটি গোষ্ঠী তে ছিলেন আগের বোর্ডের প্রধানের স্বামি আসফার মিদ্যা ও তার অনুগামীরা। অন্য গোষ্ঠীতে মোশারফের অনুগামীরা। এলাকাটি পড়ে উলুবেড়িয়া উত্তর বিধানসভা কেন্দ্রের আওতায়।

এই পঞ্চায়েতে মোট আসন ১০ টি। সব গুলিতে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে যায় তৃণমূল। দলীয় নেতৃত্বের একাংশ আসফারের বিরোধী গোষ্ঠির এক নেতাকে পরবর্তী প্রধান হিসেবে তুলে ধরেন। কিন্তু নির্বাচনের পরেও গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বজায় ছিল। তার জেরে বিরোধী গোষ্ঠির দাপটে আসফার ও তাঁর অনুগামীরা এলাকা ছাড়েন। তাঁদের মারধর করা হয় বলেও অভিযোগ। পঞ্চায়েত নির্বাচন পর্ব মেটায পরে দেখা যায়,আসফারের বিরুদ্ধ গোষ্ঠী যে নেতাকে প্রধান হিসেবে তুলে ধরা হয়েছিল। তাঁর বিরুদ্ধে মারপিটে জড়িত থাকার অভিযোগে আদালতের গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করছে। ফলে ওই নেতাকে প্রধানের পদে বসাতে কেউ রাজি হননি। তখন এই মোশারফকে প্রধানের পদে বসানো হয়।

সম্প্রতি ওই নেতা হাইকোর্ট থেকে জামিন পেয়েছে। তাঁর উপর থেকে গ্রেপ্তারি পরোয়ানাও উঠে গিয়েছে। স্থানীয় তৃণমূল নেতাদের একাংশের দাবি ওই নেতার গ্রেপ্তারি পরোয়ানা উঠে যাওয়ায় ওই নেতা ফের দলের কাছে প্রধানের দাবি করছেন। সেই দাবি মেনেই মোশারফকে পদত্যাগ করতে বলা হয়। ভিডিও লোকনাথ সরকার বলেন, দিন কয়েক আগে প্রধান পদত্যাগপত্র জমা দেন। আইনানুযায়ী এ নিয়ে শুনানি হয়। শুক্রবার তাঁর পদত্যাগ গ্রহণ করা হয়েছে। জেলা শাসকের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। জেলা শাসকের কাছ থেকে নির্দেশ এলেই পরবর্তী প্রধান নির্বাচন করা হবে। আপাতত উপপ্রধানই প্রধানের পদ সামলাবেন।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট