বিগ্রেড চলো উপলক্ষে মুর্শিদাবাদ জেলা মহিলা তৃনমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এক জনসভার আয়োজন


শুক্রবার,১১/০১/২০১৯
67

বাংলা এক্সপ্রেস---

বহরমপুরঃ বৃহস্পতিবার দুপুরে বহরমপুর মূখ্য ডাকঘরের সামনের রাস্তায় ১৯শে জানুয়ারী বিগ্রেড চলো উপলক্ষে মুর্শিদাবাদ জেলা তৃনমূল মহিলা কংগ্রেসের পক্ষ থেকে এক জনসভার আয়োজন করা হয়। এদিনের জনসভায় প্রধান বক্তা হিসাবে উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য ও আবাসন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য্য। এছাড়াও এদিন পরিবহন মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী বহরমপুরে এসে এই জনসভায় যোগ দেন। তার আগে শুভেন্দু অধিকারী বহরমপুর সাংসদ অধীর চৌধুরীর স্ত্রী প্রয়াত অর্পিতা চৌধুরীর বাড়িতে যান এবং অর্পিতার পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন। তারপরে চলে আসেন তৃনমূল মহিলা কংগ্রেসের জনসভায়। সেখানেও তিনি বক্তব্য রাখেন। এদিনের জনসভায় উপস্থিত ছিলেন জেলা তৃনমূল মহিলা সভানেত্রী শাহানাজ বেগম সহ অন্যান্য তৃনমূল নেতা কর্মীরা।

গত কাল বাঁকুড়ার তৃনমূল সৌমিত্র খাঁ সাংসদ বিজেপিতে যোগদানের পর বলে ছিলেন যে পশ্চিমবঙ্গে আইন শৃঙ্খলা ভেঙ্গে পড়েছে সেই প্রসঙ্গে স্বাস্থ্যমন্ত্রী তথা আবাসন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য্য সাংবাদিকদের বলেন যে, সৌমিত্র খাঁয়ের হঠাৎ মনে হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে গণতন্ত্র নেই। সৌমিত্র খাঁ কি বলল আর না বলল তাতে এই রাজ্যের গনতন্ত্রের স্তরের কোন এদিক ওদিক হবে না। সুতরাং বাংলাতে গনতন্ত্র আছে। যার মাথায় মমতা ব্যানার্জীর হাত নেই তার ফল শূন্য। কংগ্রেসে ছিল তার পর তৃনমূলে এসেছিল এবার বিজেপিতে গেল এরপর যেগুলো বাকী আছে সেগুলো ঘুরবে। অন্যদিকে মুকুল রায় বলেছেন এখনো ৬জন সাংসদ দলবদলের পথে আছেন সেই প্রসঙ্গে বলেন, যিনি বলেছেন তিনি নিজেও তো হারিয়ে গেছেন। অতএব আজকে যারা যাচ্ছেন তারাও হারিয়ে যাবেন।

অন্যদিকে অর্পিতা প্রসঙ্গে শুভেন্দু অধিকারী বলেন আমরা প্রায় সমসাময়িক, অর্পিতার সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব ছিল এবং দুজনেরই নিক নাম একই। আজ থেকে তিন বছর আগে তমলুকে অর্পিতা আমার কাছে গিয়েছিল। তারপর থেকে ফোনে আমাদের সাথে যোগাযোগ ছিল। অত্যন্ত জনপ্রিয় এবং একজন পরিপূর্ন নারী ছিলেন অর্পিতা। অত্যান্ত দেবনা দায়ক ঘটনা এটি। পরিবারের সঙ্গে আমি আছি।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট