ডি এল এডের পরীক্ষা রবিবারেই, তবে আগের পরীক্ষা বাতিল নয়


শনিবার,০২/০২/২০১৯
635

হাবিব উল ইসলাম---

কলকাতা: রাজ্যের 1 লক্ষ 69 হাজার প্রাথমিক ও উচ্চ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রশিক্ষণহীণ শিক্ষকদের 3 ফেব্রুয়ারি রবিবারেই প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে বাতিল হওয়া এন আই ও এসের ডি এল এড পরীক্ষায় আবার বসতে হবে। এই পরীক্ষার উপর শুক্রবার হাইকোর্ট কোনো স্থগিতাদেশ দিল না।

তবে একই সঙ্গে গত 21 ও 22 ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত 506 ও 507 কোর্সের পরীক্ষা বাতিল বলে হাইকোর্ট ঘোষণা করেনিশিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চের পক্ষে অমলেন্দু বেরার করা ডি এল এডের প্রশ্ন ফাঁস সংক্রান্ত মামলায় আজ রাজ্য সরকারের আইনজীবী ও শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চের পক্ষে র আইনজীবী বিচারপতি সমাপ্তি চ্যাটার্জির এজলাসে এন আই ও এসের বিরুদ্ধে জোর সওয়াল করলেও 3 ফেব্রুয়ারির পরীক্ষার উপর হাইকোর্ট কোনো স্থগিতাদেশ দেয়নি।

এন আই ও এসকে 12 ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টে ও 15 ফেব্রুয়ারি রাজ্য সরকারের কাছে প্রশ্ন ফাঁসের তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে হবে । তারা যদি প্রমাণ করতে পারে যে সর্ব ভারতীয় স্তরে হওয়া এই পরীক্ষায় কেবলমাত্র পশ্চিমবঙ্গেই 506 ও 507 কোর্সের পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে তবেই আগের পরীক্ষা বাতিল হবে। কিন্তু তা প্রমাণ করতে তারা ব্যর্থ হলে 21 ও 22 ডিসেম্বরে গৃহীত পরীক্ষা বৈধ হবে।

সেক্ষেত্রে 3 ফেব্রুয়ারির পরীক্ষা বাতিল হবে বলে হাইকোর্ট জানিয়েছে শিক্ষক ঐক্য মুক্ত মঞ্চের রাজ্য সম্পাদক মইদুল ইসলামের অভিযোগ, বাংলার বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার উদ্দেশ্যে কেন্দ্র সরকারের অঙ্গুলিহেলনে এ রাজ্যের 1 লক্ষ 69 হাজার শিক্ষক শিক্ষিকাকে বিপদে ফেলেছে এন আই ও এস।

তাদের অমানবিক তুঘলকি সিদ্ধান্তে প্রশিক্ষণরত শিক্ষকদের দূরবর্তী পরীক্ষাকেন্দ্রে একটানা ছয় ঘণ্টা পরীক্ষা দিতে হবে। উল্লেখ্য, আগামী 31 মার্চের মধ্যে প্রশিক্ষণহীণ শিক্ষকদের ডি এল এডের কোর্স সম্পূর্ণ করতে হবে, নইলে তাঁদের চাকরি হারাবার আশঙ্কা আছে। প্রশ্ন ফাঁস সংক্রান্ত এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে আগামী 18 ফেব্রুয়ারি।

Loading...

Weather Data Source: Weather Kolkata

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট