নৈরাজ্য সৃষ্টিকারী তৃণমূলকে রাজ্য থেকে উপড়ে ফেলা হবে : শিবরাজ সিং চৌহান


বুধবার,০৬/০২/২০১৯
360

কার্ত্তিক গুহ---

পশ্চিম মেদিনীপুর: বুধবার  দুপুর এক টার সভা বিকেল চারটায় খড়্গপুরে  সভা করলেন  মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান। আজ তাঁর সভা হওয়ার কথা ছিল বহরমপুরে। সেই সভার অনুমতি না পেয়ে তিনি খড়্গপুরে জনসভা করেন। সভার অনুমতি না দেওয়ায় মমতা বন্দোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, প্রতিটি রাজনৈতিক দলকে মানুষের সামনে বক্তব্য রাখার অধিকার সংবিধান দিয়েছে। তাহলে মমতাজি কাকে ভয় পাচ্ছেন?” বহরমপুরের সভা বাতিল হয়েছে।

রাজ্য সরকারের অনুমতি নিয়েই আজ খড়গপুরের মোহনপুরে সভা  করেন তিনি। জেলা বিজেপি সূত্রের খবর, পশ্চিম মেদিনীপুরের জেলাশাসককে সভার অনুমতি চেয়ে চিঠি দিলেও জেলাশাসকের পক্ষ থেকে কোনও জবাব পাওয়া যায়নি। মাইক বাজানোরও কোনও অনুমতি দেওয়া হয়নি। খড়গপুরে সভা শেষ করে তিনি সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন পশ্চিমবঙ্গে জরুরি অবস্থার মতো এক অভূতপূর্ব পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এই সরকার সংবিধান মানছে না।

গণতন্ত্রের সম্মান এ রাজ্যে  লুন্ঠিত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, আদিত্যনাথ যোগী, অমিত শাহ সহ বিজেপির অন্যান্য নেতাদের  সভা করতে না দিয়ে বিজেপিকে আটকাতে চাইছে। সারা রাজ্যে তৃণমূলের গুন্ডা বাহিনী আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। কিন্তু বিজেপি লোকতন্ত্রকে মরতে দেবে না। নৈরাজ্য সৃষ্টিকারী তৃণমূলকে রাজ্য থেকে উপড়ে ফেলা হবে। সিবিআই প্রসঙ্গে শিবরাজ সিং চৌহান বলেন, কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি বিজেপির কথায় চলে নাl সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে তারা তদন্ত চালাচ্ছে।

এ রাজ্যে বিজেপিকে আটকানোর সব রকম ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে তৃণমূল সরকার। কিন্তু এই খেলা বেশিদিন চলবে না। সভায় জনসমাগম ভালো না হ‌ওয়ায় রাজ্য নেতৃবৃন্দ জেলার নেতৃত্বেরর উপর ক্ষুব্ধ। তাই প্রায় ফাঁকা মাঠে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় ও রাজ্য নেতৃবৃন্দ।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট