আরাবুল-মোদাচ্ছেরদের জেলে যেতে হবে, পুলিশ ও পার পাবে না, বিস্ফোরক বিকাশ


সোমবার,০৮/০৪/২০১৯
989

বাংলাএক্সপ্রেস---

ভাঙড়:রবিবাসরীয় ভোট প্রচারে ভাঙড়ে এসে ঝড় তুললেন যাদবপুরের বাম মনোনীত সিপিআইএম প্রার্থী বিকাশ ভট্টাচার্য।এদিন ভাঙড়ের তাড়দহ এলাকায় বামেদের নির্বাচনী তহবিলে চাঁদা তোলার সময় এক সিপিএম কর্মীর তৃণমূলীদের দ্বারা আক্রান্ত হওয়ার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বিকাশ বাবু বলেন,আরাবুল-মোদাচ্ছেররা তোলা তুলে বিরাট ফ্লাট বানালে দোষ নেই।আর আমরা চাঁদা তুলতে গেলে দোষ? আরাবুল-মোদাচ্ছেরদের এত সম্পত্তি হল কোথা থেকে তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন বাম প্রার্থী।হুশিয়ারী উচ্চারণ করে দুদে আইনজীবী বিকাশ বাবু বলেন,ওঁদের সম্পত্তির তালিকা তৈরি করছি।আমাদের পিছনে লাগবেন না।লাগলে সব হিসাব বুঝে নেব আইনের মাধ্যমে।আর তখন জেলে যেতে হবে,পথে বসতে হবে,ক্ষমা চাইতে হবে মানুষের কাছে।এদিন পুলিশকেও একহাত নেন বিকাশ বাবু।শাষক দলের হয়ে আরাবুলের নির্দেশে কাজ করলে আইনের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তাঁর হুশিয়ারি।

বিকাশ বাবু আরও বলেন,মানুষ তৃণমূলীদের গুন্ডামির জবাব দেবে।আমরা গুন্ডামি করব না,মারব না,শুধু দৌড় করাব।তিনি বলেন,বিকাশ রঞ্জন যতদিন থাকবে,যারা বেআইনী কাজ করবে তাদের ছেড়ে কথা বলবেনা।সে তৃণমূলের গুন্ডারা হোক আর পুলিশ হোক।আইনী লড়াইয়ে তার ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।সম্প্রতি ভাঙড়ের ভোগালি ২ জিপি প্রধান মোদাচ্ছের হোসেনের আই কার্ড আটকে রাখা প্রসঙ্গ উল্লেখ করে বিকাশ বাবু বলেন,ভোটের দিন মোদাচ্ছেররাই জেলে আটকে থাকবেন।

রবিবার বিকালে ঘটকপুকুর থেকে লাল ঝান্ডা হাতে সিপিআইএম কর্মীরা মিছিলে হাটেন।মিছিল এসে শেষ হয় ভাঙড় থানার সামনে।কর্মীদের সঙ্গে হাঁটেন বাম প্রার্থী বিকাশ রঞ্জন ভট্টাচার্য,সিপিআইএম জেলা সম্পাদক মন্ডলির সদস্য তুষার ঘোষ,ভাঙড় ২ জোনাল কমিটির সম্পাদক রশীদ গাজী প্রমুখ।নারোদা-সারদা অস্ত্রকে হাতিয়ার করে বাম কর্মীরা শ্লোগান দিতে থাকে।মিছিলে দেখতে পাওয়া যায় জমি কমিটির ফেস্টুন হাতে অনেক কেই।মিছিলকে ঘিরে চোখে পড়ে আটোসাটো নীরাপত্তা বেস্টনি।যানযটে কিছুক্ষণের জন্য নাকাল হন পথ চলতি মানুষ।মিছিলের যথেষ্ট ভিড় বামেদের উজ্জিবিত করবে বলে রাজনৈতিক মহলের ধারণা। অন্যদিকে ভাঙড়ের তৃণমূল নেতাদের কাছে এটি গভীর চিন্তার বিষয়।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট