রায়গঞ্জে দীপা দাসমুন্সির সমর্থনে নির্বাচনী প্রচারে আসেন রাহুল গান্ধী


বৃহস্পতিবার,১১/০৪/২০১৯
185

বাংলা এক্সপ্রেস---

রায়গঞ্জঃ রায়গঞ্জে নাগর নদী সংলগ্ন জুট পার্ক ময়দানে কংগ্রেস প্রার্থী দীপা দাসমুন্সির সমর্থনে নির্বাচনী প্রচারে আসেন রাহুল গান্ধী। রাহুল গান্ধী এদিন বলেন, কংগ্রেস সব গরীবদের ব্যাঙ্কে প্রতি বছর ৭২০০০ টাকা দেবে। বিজেপি চোরেদের ব্যাঙ্কে টাকা দিতে পারলে কংগ্রেস গরীব, সৎ মানুষদের ব্যাঙ্কে টাকা দিতে পারে। পাঁচ বছর বিজেপি যা অন্যায় করেছে, আমরা এবার ন্যায় করব। চৌকিদার চোর হ্যায়, স্লোগান তোলেন রাহুল গান্ধী। চৌকিদারের চেহারা শুকিয়ে গিয়েছে। চৌকিদার ভয় পেয়েছে। জনতা চুরি ধরে ফেলেছে।

ফুড প্রোসেসিং কারখানা হবে। দেশের যে কোনও কৃষক ধার শোদ করতে না পারলে জেলে যেতে হবেনা। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়তো গরীবের কথা বলেন, কৃষকদের ঋণ মুকুব কেন করলো না? মমতা দিদি বলেন, কংগ্রেস বিজেপির সাথে লড়াই করছে না,আমি বলছি, রাফাল নিয়ে কারা লড়াই করছে? চৌকিদার চোর হ্যায় কে বলেছে? চৌকিদার ঠিক মতন ভাষণ দিতে পারছেন না। ভয় পেয়েছেন উঁনি। কংগ্রেস বিজেপির সাথ দেশে বিজেপির বিরুদ্ধে কংগ্রেস লড়াই করছে। আমি আপনাদের আশ্বাস দিচ্ছি। ২০১৯ ভোটে কংগ্রেস মোদীকে হারাবে।

রাফাল মামলায় তদন্ত হবে। যারা এই চুরির সাথে যুক্ত তাদের সাজা হবে। কেউ বাঁচবে না। এটাই সত্যি। মমতা দিদি, মোদীজি এরা রোজগার দেবার কথা বলেছিলেন, ওরা কী রোজগার দিয়েছেন বাংলার মানুষকে? প্রশ্ন রাহুলের। আমরা মিথ্যা আশ্বাস দেই না, দেশে বাইশ লক্ষ কর্মসংস্থান দেব। পঞ্চায়েতে ১০ লক্ষ কর্মসংস্থান হবে।১৫ লক্ষ দিয়ে দিলে দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা ভেঙে পড়বে। টাকা আসবে চোরেদের পকেট থেকে আসবে। আমি কাউকে ভয় পাইনা। আমি দেশের মানুষ।

বেশিরভাগ টাকা খরচ করা হবে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা ব্যবস্থায়। হাসপাতাল ও কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় খোলার জন্য বাজেটে বেশিরভাগ টাকা বরাদ্দ করা হবে। এইমস প্রতিষ্ঠা নিয়ে আমরা পুরোপুরি চেষ্টা করব। প্রিয়রঞ্জন দাসমুন্সির কর্মভূমিতে এসেছি। উঁনি আপনাদের জন্য অনেক কাজ করেছেন। তাঁকে শ্রদ্ধা জানাই। দীপা দেবীকে ভোটে জয়ী করুন।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট