কেশপুরকে কাশ্মীর বানিয়েছে তৃণমূল: ভারতী ঘোষ


রবিবার,১২/০৫/২০১৯
340

পশ্চিম মেদিনীপুর:-  ষষ্ঠ দফায় মাঝ দুপুরেই ধর্ণায় বসে পড়লেন ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষ। পুলিশ সিজ করে নিল তাঁর দুটি গাড়ি। তারপরেই কেশপুর কালীমন্দিরের চাতালে ধর্ণায় বসেন পশ্চিম মেদিনীপুরের প্রাক্তন পুলিশ সুপার। কিন্তু সেখানেও থাকতে পারলেন না। ঘণ্টা দেড়েক পুলিশ সেখান থেকে তাঁকে এবং তাঁর ইলেকশন এজেন্টকে কেশপুর থানায় নিয়ে গিয়ে বসানো হয়। সেখানে বসেই ক্ষুব্ধ ভারতী বলেন, “কেশপুরকে কাশ্মীর বানিয়েছে তৃণমূল।” পরিস্থিতি এতটাই খারাপ হয় যে, ঝামেলা ঠেকাতে ভারতীকে কেশপুরের বাইরে বার করে দেওয়া হয় পুলিশের পক্ষ থেকে।ভারতীর গাড়ি আটক করা হয় কেশপুর থানার সামনে। ভারতী যে গাড়ি নিয়ে ঘুরছিলেন তার নাকি অনুমতিই নেই। কমিশনও এ কথা জানিয়েছে।

গাড়ি আটক করতেই, ভারতী এবং বিজেপি কর্মীরা সোজা চলে যান কেশপুর কালীমন্দিরের চাতালে। সেখানে প্রায় ঘণ্টা দেড়েক বসার পর ওই মন্দির লাগোয়া এলাকায় জমায়েত করে তৃণমূল। অভিযোগ, পাঁচিলে উঠে ইটবৃষ্টি করেছে শাসক দলের বাহিনী। পরিস্থিতি বেগতিক দেখে পুলিশ এসকর্ট করে থানায় নিয়ে যায় ভারতীএ এবং তাঁর এজেন্টকে।

কেশপুর থানায় বসে ক্ষুব্ধ ভারতী বলেন, “ওরা আমায় এক জায়গায় আটকে রাখতে চাইছে। গোটা কেশপুরকে কাশ্মীরে পরিণত করেছে তৃণমূল।” পাল্টা তৃণমূলের দাবি, ভারতীই অশান্তির সৃষ্টি করেছেন। যেখানে গিয়েছেন সকাল থেকে, সেখানেই প্ররোচনা ছড়িয়েছেন। পরিস্থিতি সামাল দিতে আরও বাহিনী পাঠানো হচ্ছে সেখানে।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট