পশ্চিম মেদিনীপুরে মদ্যপানের প্রতিবাদ করায় আক্রান্ত ব্যবসায়ী


শনিবার,০৬/০৭/২০১৯
213

পশ্চিম মেদিনীপুর:-মদ্যপানের প্রতিবাদ করাতে কপালে জুটলো মার। ঘটনাটি মেদিনীপুর শহরের। শুক্রবার রাতে মেদিনীপুর শহরের মিরবাজার এলাকার মল্লিক চকে নিজের মোনোহারি দোকানের সামনে দুই যুবককে মদ্যপান করতে দেখে সত্যব্রত দে। সেই সময় প্রতিবাদ করায় যুবকরা প্রথমে পালিয়ে যায়। পরে একটি মারুতি ভ্যানে করে দলবল নিয়ে এসে সত্যব্রত দে ও দোকানের কর্মচারী অনীশ মুরারকাকে লাঠি রড দিয়ে বেধড়ক মারধর করে বলে অভিযোগ।বিয়ারের বোতল দিয়ে মাথায় আঘাত করলে মাথা ফেটে যায় সত্যব্রত দের, গুরুতর আহত হয় অনিস মুরারকাও। আক্রান্তদের চিৎকার শুনে স্থানীয়রা ছুটে এলে, পালিয়ে যায় দুষ্কৃতীরা। অভিযোগ পালিয়ে যাওয়ার সময় দুষ্কৃতীরা সত্যব্রত দের কাছ থেকে দোকানের ৯৫ হাজার টাকা ও অনিস মুরারকার একটি সোনার চেন ছিনতাই করে নিয়ে যায়। এলাকাবাসীরা ধাওয়া করায় মারুতি ভ্যানটি ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

স্থানীয়রা মারুতি ভ্যানটি আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। ঘটনার পর শনিবার দুপুরে মেদিনীপুর কোতোয়ালী থানায় অভিযোগ দায়ের করে আক্রান্তরা। ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে স্থানীয় ব্যবসায়ীরা। পুলিশ দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা না নিলে রবিবার থেকেই বৃহত্তর আন্দোলনের পথে হাটবার হুঁশিয়ারি দিয়েছে বড়বাজার ব্যবসায়ী সমিতি। রবিবার মল্লিকচক অবরোধ ও বড়বাজার বন্ধের কথাও ঘোষনা করেছে স্থানীয় ব্যাবসায়ীরা। রাতের শহরে এ ধরনের ঘটনা ঘটায় প্রশ্ন উঠছে শহরের নিরাপত্তা নিয়ে। ঘটনার পিছনে পুলিশি নিষ্কৃয়তাকেই দায়ী করেছে ব্যাবসায়ীরা। ঘটনায় এখোনো অধরা দুষ্কৃতিরা। চরম আতংকে রয়েছে আক্রান্ত ও এলাকাবাসীরা॥

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট