হাওড়ায় সাংবাদিক ও পুলিশের মানবিকতার মুখ


রবিবার,১১/০৮/২০১৯
510

ট্রেনে দরজায় দাঁড়িয়ে ছিলেন এক যুবক। বিপদজনকভাবে দাঁড়ানোর জন্য পোস্টে ধাক্কা খেয়ে কামরার ভিতরে পড়ে যান তিনি।তবুও ট্রেনে ভিতরে থাকা কোনও যাত্রী মানবিকতা দেখালেন না। অবশেষে কলকাতা টিভির সাংবাদিক জগন্নাথ সামন্ত ও বেলুড় জিআরপি থানার বড়বাবু বিকাশ মুখোপাধ্যায়ের সহযোগিতায় ওই যুবককে ট্রেন থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

হাওড়ার – ব্যান্ডেল লোকালে ঘটনাটি ঘটে। ট্রেনটি লিলুয়ায় ঢোকার আগেই রেল লাইনের ধারের পোস্টে ধাক্কা খান ওই যুবক। তবে বাইরে না-পড়ে তিনি ভেন্ডার কামরার ভিতরেই পড়েন। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে পড়ে থাকতে দেখলেও কোনও যাত্রী সহযোগিতার হাত বাড়াননি। এক যাত্রীর মারফত ঘটনাটি জানেন জগন্নাথ। তিনি তৎক্ষণাৎ বেলুড় জিআরপি-র ওসি বিকাশ মুখোপাধ্যায়কে জানালে তিনি লোকজন নিয়ে বেলুড় স্টেশনে গিয়ে ট্রেনটিকে আটকে যুবককে উদ্ধার করেন। তখন কয়েকজন যাত্রীও সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন। সকলে মিলে আহত যুবককে বেলুড় স্টেট জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যান। তখনই তাঁর পকেট থেকে পাওয়া পরিচয়পত্র দেখে জানা যায়, তাঁর নাম পঙ্কজ কুমার। বাড়ি বিহারের মুজফফরপুরে।

বেলুড় থেকে পরে ওই যুবককে হাওড়া জেলা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্ত কোনও অ্যাম্বুল্যান্স চালক যেতে রাজি হন না। অনেকে ফোনও তোলেন না। শেষে বিকাশবাবু নিজের জিপ নিয়ে চলে আসেন। তখন স্থানীয় শ্রমজীবী হাসপাতালের অ্যাম্বুল্যান্স বিষয়টি জানতে পেরে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেয়। সেই অ্যাম্বুল্যান্সেই যুবককে হাওড়া জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।হাওড়ায় সাংবাদিক ও পুলিশের এই মানবিক মুখ খুব প্রশংসাযোগ্য।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট