শ্রম ভবন অভিযান সিটুর


শুক্রবার,২৩/০৮/২০১৯
444

একাধিক দাবিতে বৃহস্পতিবার শ্রমদপ্তর অভিযানে নামল সিপিএমের শ্রমিক সংগঠন। এই কর্মসূচি ঘিরে টানটান উত্তেজনা ছড়ায় নব মহাকরণের সামনে। মোতায়েন ছিল বিশাল পুলিশ বাহিনী। তবে শান্তিপূর্ণভাবেই শেষ হয় কর্মসূচি।

ন্যূনতম কুড়ি হাজার টাকা বেতন, সম কাজে সম বেতন, ঠিকা শ্রমিকদের স্থায়ীকরণ সহ একাধিক দাবিতে বৃহস্পতিবার শ্রমদপ্তর অভিযানে সামিল হলেন শ্রমিক-কর্মচারীরা। সিপিএমের শ্রমিক সংগঠন সিটুর পক্ষ থেকে এই কর্মসূচি পালন করা হয়। এ দিনের কর্মসূচিতে সিটু নেতা অনাদি শাহু অভিযোগ করে বলেন, শ্রম দপ্তর থেকে শ্রমিকরা সামাজিক সুরক্ষার টাকা পাচ্ছেন না। শ্রম দপ্তরের ব্যাপক দুর্নীতি চলছে। কাটমানি না দিলে শ্রমিকরা ক্লেমের টাকা পাচ্ছেন না। এইসব এর প্রতিবাদ জানাতেই তাদের আজকের এই শ্রম দপ্তর অভিযান কর্মসূচি। সিটুর একটি প্রতিনিধিদল এদিন রাজ্যের শ্রমমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে ডেপুটেশন জমা দিয়ে আসেন। সংগঠনের রাজ্য সভাপতি সুভাষ মুখার্জি বলেন শ্রমিক কর্মচারীদের দাবি-দাওয়া সরকারের গোচরে আনা হয়েছে। এরপরও সরকার তাদের দাবি-দাওয়া নিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা না নিলে আরো বৃহত্তর ও দীর্ঘমেয়াদি আন্দোলনের পথেই হাঁটবেন তারা।

রাজ্য সরকার রানী রাসমণি রোডে তাদের জমায়েতের অনুমতি দিক বা না দিক, এই কর্মসূচি হবেই। আগেই এই হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন সিটুর রাজ্য নেতারা। এদিন শ্রমমন্ত্রীর দপ্তরের সামনেই বিক্ষোভ সংগঠিত করেন আন্দোলনকারীরা। তবে আইন অমান্যের রাস্তায় হাঁটেন নি তারা। এ দিনের কর্মসূচি থেকে কেন্দ্রের বিরুদ্ধেও সরব ছিলেন সিপিএমের শ্রমিক নেতারা।

একের পর এক রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প কেন্দ্র বন্ধ করে দিচ্ছে বা বেসরকারিকরণ করার পথে হাঁটছে। এই নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে রাজ্য সরকার কোনও রকম আন্দোলন করছে না বলে অভিযোগ করেন তাঁরা।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট