আলওয়ারে একটি মুসলিম দম্পতিকে ‘রাম-রাম’ জপ না করার জন্য দু’জন ব্যক্তি লাঞ্ছিত করে বলে অভিযোগ


সোমবার,০৭/১০/২০১৯
559

শনিবার গভীর রাতে আলওয়ারে একটি মুসলিম দম্পতিকে ‘রাম-রাম’ জপ না করার জন্য দু’জন ব্যক্তি লাঞ্ছিত করে বলে অভিযোগ। তারা দিদওয়ানা থেকে হরিয়ানার নুহ ভ্রমণ করছিলেন, যেখানে তারা থাকেন। লোকটি আলওয়ার বাসস্ট্যান্ডে স্ত্রীকে নিতে এসেছিল। দম্পতি এবং তাদের শিশু বাস স্ট্যান্ডে জলখাবার করছিলেন, তখন ভরদ্বাজ ও সুরেন্দ্র ভাটিয়া নামে দু’জন লোক তাদের কাছে এসে দুর্ব্যবহার শুরু করে। দম্পতির অভিযোগ, এই দুজনই তাদের বলেছিল যে “মুসলমানরা হিন্দুস্তানে থাকে কিন্তু রাম-রাম জপ করে না” তার পর তারা এই দম্পতিকে নিগ্রহ করতে শুরু করে। তারা তখন স্বামীকে ‘রাম-রাম’ জপ করার আদেশ দেয় এবং তিনি অস্বীকার করলে তারা তাকে মারধর শুরু করে। স্ত্রী প্রতিবাদ করলে তারা তাকে যৌন নিগ্রহ করা শুরু করে। শীঘ্রই, ভিড় জমায়েত হয়ে যুবকদের মারধর করে, পরে তাদের থানায় নিয়ে আসা হয়।

দম্পতিরা ভরদ্বাজ ও ভাটিয়ার বিরুদ্ধে আলওয়ারের একটি মহিলা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। রাজস্থান পুলিশ যুবকদেরকে আলওয়ারের রাজীব গান্ধী হাসপাতালে চিকিৎসা করিয়েছে এবং ভুক্তভোগী দম্পতির মেডিকেল পরীক্ষা করানোর পরে ৩৫৪-এ (যৌন নিগ্রহ), ২৯৫ এ (ধর্মীয় অনুভূতিতে ক্ষোভ প্রকাশের উদ্দেশ্যে ইচ্ছাকৃত এবং দূষিত আচরণ), ৫০৯ (নারীর ক্ষোভজনক আচরণ), ৩২৩ (স্বেচ্ছায় আহত হওয়া) এবং ৩৬৬ (একজন ব্যক্তিকে মৃত্যুর বা গুরুতর আঘাতের ভয়ে রেখে চাঁদাবাজি) ধারায় ভারতীয় দণ্ডবিধি দায়ের করা হয়েছিল। পুলিশ ভরদ্বাজ ও সুরেন্দ্র ভাটিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে।

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট