অসাধ্যসাধন করার সম্পূর্ণ কৃতিত্বই এক ভারতীয় প্রযুক্তিবিদকে দিয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা।


বুধবার,০৪/১২/২০১৯
454

বাংলা এক্সপ্রেস ডিজিটাল ডেস্ক ; ---

মহাকাশ গবেষণার প্রতি তাঁর অদম্য ইচ্ছা ও প্রানশক্তি সফলতা এনে দিল এক ভারতীয় প্রযুক্তিবিদকে। পেশায় ইঞ্জিনিয়ার হওয়া স্বত্বেও তিনি জোর চর্চা চালিয়ে গিয়েছিলেন মহাকাশ গবেষণার বিষয়ে। পাশাপাশি চাঁদের মাটিতে যখন বিক্রম নিখোঁজ হয়ে গিয়েছিল, তাঁর সন্ধানে তোলপাড় হয়ে উঠেছিল সমগ্র দেশ। তাঁর সন্ধানে অবিচল ছিল মহকাশ গবেষণা সংস্থা। অবশেষে খোঁজ মিলল ল্যান্ডারের। আর তাঁর হদিশ দিলেন ৩৩ বছর বয়সি ওই যুবক তামিলনাড়ুর মাদুরাইয়ের বাসিন্দা। নাম সন্মুগ সুব্রহ্মণ্যম। তিনি পেশায় একজন প্রযুক্তিবিদ।

 

নাসার তরফে নতুন ছবি প্রকাশ করার পর বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছে, ”সন্মুগই প্রথম ব্যক্তি যিনি অবতরণস্থল থেকে ৭৫০ মিটার উত্তর-পশ্চিমের একটি ধ্বংসাবশেষ দেখে আমাদের জানান যে সেটি বিক্রমের। ভারতীয় যুবকের এই সাফল্যে গর্বিত গোটা দেশ। কেবলই নিজের তাগিদ থেকে বিক্রমকে খোঁজার চেষ্টা  জারি রেখেছিলেন  চেন্নাইয়ের সন্মুগ সুব্রণ্যহ্মন। দীর্ঘ কয়েকমাস হাড়হিম পরিশ্রমের ফসল পেলেন এই ভারতীয় যুবক। প্রায় তিন মাসের মাথায় খোঁজ মিলল বিক্রমের।

 

তাঁর এই অসাধারন সাফল্যে নিয়ে জোর চর্চা চলছে সব মহলে। তাঁর এই কাজ বর্তমানে যুব সমাজকে আরও অনেক বেশি অনুপ্রেরনা জোগাবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না। এই অসাধ্যসাধন করার সম্পূর্ণ কৃতিত্বই এক ভারতীয় প্রযুক্তিবিদকে দিয়েছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট