করোনা সচেতনতায় তারাপীঠ, বাধা নেই পুণ্যার্থীদের প্রবেশে


মঙ্গলবার,১৭/০৩/২০২০
417

গোটা বিশ্ব জুড়ে করোনার থাবা। যার জেরে বন্ধ হয়ে গিয়েছে বিশ্বের বিখ্যাত সব মন্দির মসজিদ গীর্জা। ভ্যাটিক্যান সিটি থেকে মক্কা-মদিনা – জারি হয়েছে পুণ্যার্থী প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা। বন্ধ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কিংবা আদালত। মহানগরী কলকাতাতেও ভিক্টোরিয়া, জাদুঘর থেকে চিড়িয়াখানা – জারি হয়েছে বন্ধের নোটিশ। ভারতের একাধিক ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার কথা ঘোষনা হয়েছে।

তবে ব্যাতিক্রম বীরভূমের তারাপীঠ। ভক্ত সমাগমে কোন বাধা নেই এখানে। চলছে পুজোপাঠ। আসছেন পুণ্যার্থীরা। তবে পুণ্যার্থীদের সচেতনতায় একাধিক উগদদ্যোগ নেওয়া হয়েছে মন্দির কমিটির পক্ষ থেকে।

করোনাভাইরাস সতর্কতা এবার তারাপীঠ মন্দিরে। তবে আগত পুণ্যার্থীদের মন্দিরে ঢোকার ক্ষেত্রে কোনো রকম বাধা নেই। বরং বলাই বাহুল্য এই তারাপীঠ মন্দির আগত সাধারণ মানুষদের, আগত পূণ্যার্থীদের করোনা ঠেকাতে পথ দেখাচ্ছে। দিনভর মন্দির চত্বরে হালকা আওয়াজের মধ্যে করোনাভাইরাস ঠেকানোর ক্ষেত্রে আমাদের কি কি সচেতনতা অবলম্বন করা প্রয়োজন তা প্রচার করা হচ্ছে। পাশাপাশি চলছে লিফলেট বিলি।

শুধু এখানেই শেষ নয় করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ যাতে না বাড়ে তার জন্য সোমবার থেকে মন্দির কমিটি নতুন নিয়ম লাগু করল। নতুন নিয়ম অনুযায়ী, মন্দিরে আগত পুণ্যার্থীদের তারা মায়ের পুজো দেওয়ার জন্য লাইনে দাঁড়ানোর সময় অন্ততপক্ষে ২ মিটার ফারাক রাখতে হবে। যদিও বীরভূম জেলা প্রশাসনের সিদ্ধান্তে তারাপীঠ মন্দিরের সমস্ত কাজকর্ম স্বাভাবিক।

তারাপীঠ মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায় জানান, “তারা মায়ের কাছে আমরা প্রার্থনা করছি যেন গোটা বিশ্ব এই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে মুক্তি পায়। পাশাপাশি তারাপীঠ মন্দিরে আগত পুণ্যার্থীদের সামনে আমরা যতটা সম্ভব সচেতনতা বার্তা তুলে ধরছি। এই ভাইরাস থেকে মুক্তির উপায় হলো সচেতনতা অবলম্বন।”

প্রসঙ্গত, দিন কয়েক আগে তারাপীঠ মন্দির বন্ধ রাখা সম্পর্কিত একটি গুজব খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। যার পরেই সেই গুজবের বিরুদ্ধে তারাপীঠ মন্দির কমিটি থানার দ্বারস্থ হয়। তবে তার পরেই তারা কোনরকম গুজবে কান না দিতে পুণ্যার্থীদের বারণ করেন। পাশাপাশি নিজেরাও সকলের সামনে সচেতনতামূলক বার্তা তুলে ধরার জন্য সচেষ্ট হন।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট