গ্রামে গিয়ে দুস্থ-দরিদ্রদের পাশে নিয়ে বিবাহ বার্ষিকী উদযাপন করলেন পশুপ্রেমী নীলাঞ্জনা বিশ্বাস


সোমবার,০৪/০৫/২০২০
629

লকডাউনের জেরে দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের এখন করুণ অবস্থা। দুবেলা ঠিকমত খাবারও জুটছে না। করোনা অতিমারির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে শামিল গোটা দেশবাসী। তাই বন্ধ সব রকমের সামাজিক অনুষ্ঠানও। এই করোনা আবহের মধ্যে নিজের বিবাহ বার্ষিকীতে কোন আড়ম্বরতা নয়, আর দশজনের সঙ্গে আনন্দ ভাগ করে নিলেন বিশিষ্ট পশুপ্রেমী নীলাঞ্জনা বিশ্বাস। কল্যাণীর এই গৃহবধূ বিবাহ বার্ষিকী উপলক্ষে পৌঁছে গিয়েছিলেন প্রত্যন্ত গ্রামে। লকডাউনে কাজ হারানো মানুষগুলোর সঙ্গে কাটালেন সারাদিনটা। পেটপুরে খেতে না পাওয়া শিশুগুলোকে সঙ্গে নিয়ে কাটলেন কেক। গোটা গ্রামবাসীর হাতেই তুলে দিলেন বিরিয়ানির প্যাকেট। নীলাঞ্জনা বিশ্বাস বলেন, করোনা অতিমারির ফলে মানুষের জীবনের ছন্দটা হারিয়ে গিয়েছে। আটকে পড়েছেন সবাই। হারিয়ে গিয়েছে আনন্দ। সবার সঙ্গে তাই এই আনন্দের মুহূর্ত ভাগ করে নিলাম।

লকডাউনে রুজিরুটি হারানোয় কোন রকমে ডাল-ভাত বা কচুসেদ্ধ খেয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে সমাজের পিছিয়ে পড়া বর্গের মানুষজনের। কোন কোন দিন তাও জুটছে না। বাচ্চাগুলোর মুখে তুলে দিতে পারছেন না তাদের পছন্দের কোনো খাবার। এই দুর্দিনের বাজারে বিরিয়ানির মত লোভনীয় খাবার পেয়ে তাই বেজায় খুশি দুঃখক্লিষ্ট মুখগুলো। যেন আনন্দের উচ্ছ্বাসে ভেসে যান তারা। নীলাঞ্জনা বিশ্বাস বলেন, আগামী দিনেও এই মানুষগুলোর জন্য কিছু করার ইচ্ছে আছে তাঁর।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট