বিশেষ নিবন্ধ: পরিযায়ী শ্রমিক


রবিবার,১৭/০৫/২০২০
376

সারা দেশ জুড়ে করোনা মহামারি ও তার সাথে লকডাউনের আবহে বিভিন্ন রাজ‍্যে আটকে পড়া ভিন রাজ‍্যের পরিযায়ী শ্রমিকদের প্রতি যে অকল্পনীয় উদাসীন ব‍্যবহার ও অমানবিক আচরণ করা হচ্ছে তার বিরুদ্ধে ধিক্কার জানাবার ভাষা নেই। এই মর্মান্তিক আবহেও চূড়ান্ত ছলচাতুরী,ভাষাবিলাস- এর মাধ‍্যমে মায়াবিলাস তৈরী করা,হেলিকপ্টারে পুষ্পবৃষ্টিসহ ভানসর্বস‍্যতা দেখে মন বিবশ ।পরিযায়ী শ্রমিকদের অভুক্ত অবস্হায় হাজার হাজার মাইল পাড়ি দিয়ে নিজের বাড়ি ফেরার চেষ্টা,পথে গাড়ির ধাক্কায় প্রাণ হারানো,রেল লাইনে দ্বিখন্ডিত হয়ে পড়ে থাকার মত নির্দয় ও মর্মান্তিক ঘটনা ইংরেজ শাসনের কথা মনে করিয়ে দেয়। পরিয়ায়ী শ্রমিকরা বাড়ি ফিরতে চাইলে তাদের কাছ থেকে এই নিদারুণ সময়ে ভাড়া আদায়- এর কারণ অজানা।হেলিকপ্টারে পুষ্পবৃষ্টির খরচ বাঁচিয়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের সাহায‍্য করা যেতনা? রাজনৈতিক দলের বিভিন্ন সমাবেশে যারা চিঁড়িয়াখানা দেখতে যায় তাদের কাছ থেকে ভাড়া আদায় হয়?দেউলে হয়ে যাওয়া রাজনীতিবিদদের পারস্পরিক চাপানউতোর অসহ‍্য!পরিযায়ী শ্রমিকদের প্রতি দেশব‍্যাপী এ হেন আচরণ দেখে মনে হচ্ছে ভোট ব‍্যাঙ্ক এর সাথে পরিযায়ী শ্রমিকরা সরাসরি যুক্ত নয় বলে তাদের জীবন দিয়ে মূল‍্য দিতে হচ্ছে! গ্ল‍্যামারসর্বস‍্য মিডিয়া, সন্তানসম্ভবা সেলিব্রেটির সাথে প্রসবের দিনক্ষন নিয়ে প্রহর গুনছে!! অর্থহীনতার ব‍্যাধিতে আক্রান্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের অন্তহীন যাত্রাপথের একমাত্র ইচ্ছা বাড়ি ফেরা হলেও, নিয়তি সেই অনাহার,করোনায় আক্রান্ত্র হওয়া এবং মৃত‍্যু।।পরিযায়ী শ্রমিক দলের বাড়ি ফিরতি এক মা তার সন্তানকে ট্রলি ব‍্যাগে চাপিয়ে হেঁটে চলেছে, রাস্তায় সন্তান প্রসব করার পর এক মা,মাত্র দুঘন্টা বিশ্রাম নিয়ে আবার পথ চলা শুরু করেছে-এসব দেখতে হচ্ছে ঝাপসা দৃষ্টিতে!!
অদ্ভুত- একটা ধিক্কার পর্যন্ত নেই?রাজনীতিবিদ,সেলিব্রেটি,

খেলোয়ার,অভিনেতা,সুশীল সমাজ আর ছাত্র সমাজ নীরব স্বরে রবীন্দ্রসঙ্গীত গাইছে,”নীরব করে দাও হে তোমার মুখর কবিরে এবার”
এই প্রতিবাদহীনতার জন‍্য ভবিষ‍্যত আমাদের ক্ষমা করবে না।

প্রভাত কুমার মিত্র

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট