বাংলাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত সব পাটকল বন্ধের সিদ্ধান্ত


শুক্রবার,০৩/০৭/২০২০
325

মিজান রহমান, ঢাকা: শ্রমিকদের শতভাগ পাওনা বুঝিয়ে দিয়ে সংস্কার ও আধুনিকায়নের জন্য রাষ্ট্রায়ত্ত সব পাটকলের উৎপাদন কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস। ২ জুলাই বৃহস্পতিবার গণভবনে মুখ্য সচিব, অর্থ সচিব, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিবের সঙ্গে বৈঠক করেন সরকার প্রধান। এই বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা জানান প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব। একইসঙ্গে শ্রমিকদের পাওনা টাকা সরাসরি তাদের ব্যাংক হিসাবে দেয়া হবে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমদ কায়কাউস। মুখ্য সচিব বলেন, ‘আজ যখন প্রধানমন্ত্রী এই সিদ্ধান্ত নিলেন, তিনি খুব আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েছিলেন।’ ‘রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর আধুনিকায়ন ও রিমডেলিংয়ের জন্য উৎপাদন কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

শ্রমিকদের শতভাগ পাওনা বুঝিয়ে দিতে পাঁচ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।. কায়কাউস বলেন, ‘শ্রমিকদের আরও দক্ষ করতে প্রশিক্ষণ দেবে সরকার। পরবর্তীতে এ কারখানাগুলো পুনরায় চালু হলে নিয়োগের ক্ষেত্রে বর্তমান শ্রমিকদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে।ধারাবাহিকভাবে লোকসানে থাকায় রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোর ২৪ হাজার ৮৮৬ জন স্থায়ী কর্মচারীর চাকরি গোল্ডেন হ্যান্ডশেকের মাধ্যমে অবসায়নের সিদ্ধান্তের কথা সম্প্রতি জানিয়েছিলেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী। এক প্রশ্নের জবাবে মুখ্য সচিব বলেন, ‘পাটকল শ্রমিকরা এতোদিন ঠিকমতো তাদের পাওনা পেতো না। এখন তাদের সব পাওনা বুঝিয়ে দেওয়া হবে। মূলত শ্রমিকদের সুরক্ষার জন্য ৫০ শতাংশ পারিবারিক সঞ্চয়পত্রের মাধ্যমে দেয়া হবে।এর ফলে শ্রমিকরা এখন যে অবস্থায় আছেন তার চাইতে বেশি ভালো থাকবেন বলে এসময় জানান প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট