রেলকে বেসরকারিকরণের নামে বিক্রি করে দেওয়ার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেসের বিক্ষোভ


মঙ্গলবার,০৭/০৭/২০২০
386

হাওড়া: জাতীয় সম্পদ ভারতীয় রেলকে বেসরকারিকরণের নামে বিক্রি করে দেওয়ার প্রতিবাদে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে বাগনান কেন্দ্রে তৃণমূল কংগ্রেসের ডাকে মঙ্গলবার বাগনান রেলওয়ে স্টেশনের বাইরে অবস্থান বিক্ষোভের আয়োজন করা হয়। উক্ত সভায় বাগনানের বিধায়ক অরুণাভ সেন তীব্র ভাষায় কেন্দ্রীয় সরকারের জনবিরোধী নীতির সমালোচনা করেন। তিনি বলেন কেন্দ্রীয় সরকার ভারতবর্ষের সমস্ত লাভজনক প্রতিষ্ঠান বিক্রি করার চক্রান্তে লিপ্ত হয়েছে। একইসঙ্গে ভারতবাসীর অত্যন্ত গর্বের সম্পদ ভারতীয় রেলকেও বেচে দেওয়ার চক্রান্ত শুরু হয়েছে। ভারতের বিজেপি সরকার যারা দেশের মানুষকে ‘আচ্ছে দিনের’ স্বপ্ন দেখিয়ে দেশের ক্ষমতায় আসীন হয়েছিলেন, যারা ভারতবাসীকে বুলেট ট্রেনের স্বপ্ন দেখিয়েছিলেন তারা মহারাষ্ট্র এবং পশ্চিমবঙ্গের লোকাল ট্রেনকে বিক্রি করে দেওয়ার চক্রান্তে লিপ্ত হয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

বাংলা এবং মহারাষ্ট্রের মানুষের যাতায়াতের প্রধান মাধ্যম হল এই লোকাল ট্রেন। সেই ট্রেন বেসরকারিকরণের নাম করে প্রাইভেট কোম্পানির হাতে বিক্রি করার ষড়যন্ত্র চলছে। ইতিমধ্যে মহারাষ্ট্রে ১৫ টি এবং পশ্চিমবঙ্গে ১২ টি লোকাল ট্রেন প্রাইভেট কোম্পানির হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। তিনি বলেন তাঁরা এই ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। কারণ এই পরিবহন ব্যবস্থার উপরে ভারতবর্ষের অসংখ্য গরিব মানুষ নির্ভর করেন। বহু গরিব মানুষ রুটি-রুজির তাগিদে গ্রাম থেকে শহর এলাকায় যাতায়াত করেন। রেল বিক্রি হয়ে গেলে যাতায়াত খরচ বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে। প্রথমে লোকাল ট্রেন দিয়ে শুরু হয়েছে এরপর সমস্ত ট্রেন বিক্রি করা হবে। এর আগেও ভারতের প্রধান প্রধান রেলওয়ে প্ল্যাটফর্ম গুলো বিক্রি করা হয়েছে। তিনি বলেন কোনভাবেই রেলকে বিক্রি হতে দেওয়া যাবে না এর জন্য আন্দোলন যতদূর নিয়ে যেতে হয় তা তাঁরা যাবেন। এদিনের অবস্থান-বিক্ষোভে উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের বাগনান কেন্দ্র সভাপতি মানস বসু, বাগনান-১ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি পঞ্চানন দাস প্রমুখ।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট