বাংলাদেশে স্থবিরতা কাটল ক্রিকেটের


রবিবার,১৯/০৭/২০২০
252

ডেস্ক রিপোর্ট, ঢাকা: করোনাভাইরাস শিকল পড়িয়ে রেখেছিল ক্রিকেটারদেরও। খেলা, অনুশীলন সব থেকে দূরে ছিলেন সবাই। ঘরেই ফিটনেস ট্রেনিং ছিল কেবল ভরসা। তবে মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুনরা মাঠে ফিরলেন ১৯ জুলাই রবিবার। শুরু করে দিলেন ব্যক্তিগত অনুশীলন। করোনাকে হারিয়ে স্বাভাবিক জীবনে যে ফিরতেই হবে একদিন! দেশের শীর্ষ ক্রিকেটারদের বেশ কজন চারটি ভেন্যুতে ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু করলেন। করোনার কারণে দীর্ঘ বিরতির পর মাঠে ফিরে বেশিরভাগই ফিটনেস অনুশীলন করেছেন এদিন। কেউ কেউ নেটে বোলিং মেশিনে সেরেছেন ব্যাটিং প্র্যাকটিস। জাতীয় দলের সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম, মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ মিঠুন এবং পেসার শফিউল ইসলাম মিরপুরে বিসিবির একাডেমি মাঠে অনুশীলন সারেন। পেসার খালেদ আহমেদ ও স্পিনার নাসুম আহমেদ সিলেটে অনুশীলন করেছেন।

অন্যদিকে নুরুল হাসান সোহান, মেহেদী হাসান মিরাজ ও মেহেদী হাসান অনুশীলন করেছেন খুলনায়। চট্টগ্রামে অফ স্পিনার নাঈম হাসানের অনুশীলন করার কথা থাকলেও বৃষ্টির কারণে করতে পারেননি তিনি। মিরপুরে মুশফিক, মিঠুন, শফিউলরা অনুশীলন করেন সকালে। আগে থেকেই বিসিবির তৈরি করে দেওয়া সূচিতে সবাই পৃথকভাবে অনুশীলন করেছেন। মুশফিক যেমন সাড়ে ৮টা থেকে ৩০ মিনিট রানিং করেছেন। এক ঘণ্টা বিশ্রাম নিয়ে ১০টায় যান নেটে। টানা এক ঘণ্টা তিনি বোলিং মেশিনে অনুশীলন করেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। দীর্ঘ চার মাস পর মাঠে ফেরার দিনে একটা পরিচিত দৃশ্যও দেখা মিলে। মুশফিক এদিনও মাঠে এসেছিলেন নির্ধারিত সময়ের বেশি আগে। মুশফিকের আগে মিঠুন ৯টা থেকে এক ঘণ্টা ব্যাটিং অনুশীলন করেছেন নেটে। এরপর রানিং করেন। ১১টা থেকে ৩০ মিনিট রানিং করেন পেসার শফিউল ইসলাম। অনুশীলন করতে চাওয়া ৯ ক্রিকেটারকে ২৬ জুলাই পর্যন্ত রুটিন করে দিয়েছে বিসিবি। সেই অনুযায়ী স্বাস্থ্য সুরক্ষা বজায় রেখে অনুশীলন করবেন তারা। ঢাকায় যারা অনুশীলন করছেন তারাই শুরু ফিটনেস অনুশীলনের সঙ্গে নেটে ব্যাটিং প্র্যাকটিসের সুযোগ পাচ্ছেন। ঢাকার বাইরের তিন ভেন্যুতে ক্রিকেটাররা শুধু ফিনটেস ট্রেনিং করবেন। ক্রিকেটারদের এই ট্রেনিং কার্যক্রম হয়তো ঈদের পর বাড়ানো হতে পারে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

জানা অজানা

সাহিত্য / কবিতা

সম্পাদকীয়


ফেসবুক আপডেট