আঘাত করলে প্রত্যাঘাত হবে, বিজেপিকে হুঁশিয়ারি মমতার


মঙ্গলবার,১৫/১২/২০২০
327

কুৎসা-অপপ্রচার করে ক্ষমতায় আসতে চাই বিজেপি। জলপাইগুড়িতে আয়োজিত জনসভা থেকে বিজেপিকে হুঁশিয়ারি দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বলেন, বিজেপির কাজ শুধু কুৎসা করা, সাম্প্রদায়িক উসকানি ছড়ানো। নিজেদের দলের কর্মীদের খুন করে অন্যের ঘাড়ে দোষ চাপিয়ে বাংলার দখল নিতে চাইছে। কিভাবে বাংলার উন্নতি হবে সে বিষয়ে কোন ভাবনা চিন্তা নেই। বাংলাকে বঞ্চনা করে চলেছে। বহিরাগতদের নিয়ে এসে বাংলার চিরকালীন সৌভ্রাত্বকে ধ্বংস করতে চাইছে। দাঙ্গা বাঁধানোর ছক কষসে। বাংলার মানুষ এর যোগ্য জবাব দেবে বলে জানান তিনি।

জলপাইগুড়িতে জনসমাবেশ থেকে আত্মসমালোচনাও করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, কাজকর্মে ভুলভ্রান্তি থাকলে সংশোধন করে নেব। কাজ করলে ভুল হয়, এটা আমার কথা নয়, নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু বলেছিলেন। যে ক্ষমতায় থাকে, তাকে কাজ করতে হয়, কাজ করার চেষ্টা করতে হয়। যে ক্ষমতায় নেই, তার দায়বদ্ধতাও নেই। কুৎসা করে, অপপ্রচার করে আসন দখল করাই তার কাজ। আবেগতাড়িত হয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, গত লোকসভায় উত্তরবঙ্গে একটা সিটও পাইনি। কী অপরাধ ছিল, কী অন্যায় করেছিলাম! বাইরে থেকে আরএসএস এর লোকজন এল, মানুষকে ভুল বোঝাল। এরা হিন্দু ধর্মের নয়, ঘৃণার প্রচারক।এদের প্রতিহত করুন। সভায় মহিলাদের উপস্থিতি ছিল চোখে পড়ার মতো। সেই জমায়েতের কাছে মমতার আহ্বান, আমার সঙ্গে থাকবেন বঙ্গ জননীরা? সায় জনতার।

বিজ্ঞাপন

এদিনের সমাবেশ থেকে মমতা বলেন, আমি ভালো তো খুব ভালো।কিন্তু আঘাত করলে, এমন প্রত্যাঘাত করবো, তোমরা বিজেপি কোটি গুন্ডা দিয়েও সামলাতে পারবে না। ভাবছে, কেন্দ্র থেকে ফোর্স এনে, রাজ্যের অফিসারদের বদলি করে বাংলা দখল করবে। তা হবে না। ওদের উদ্দেশ্য বাংলাকে গুজরাত করা, বাংলার মেরুদন্ড ভাঙা। বাংলাকে গুজরাত করতে দেব না। মেরুদন্ড সোজা করে থাকব। এটা বাংলার কৃষ্টি সংস্কৃতি র উপর আঘাতের চেষ্টা। এই লড়াই বাংলা মা কে রক্ষার লড়াই, এই লড়াইয়ে আমরা জিতবই। জনতার উদ্দেশ্যে জননেত্রী বলেন, কী মা বোনেরা, ছাত্র যুবরা? এই লড়াই করতে পারবেন তো। সমুদ্র গর্জনে সভার জবাব, পারব দিদি, পারবই। মমতার প্রতিক্রিয়া, জিতে সে জয় উৎসর্গ করব বাংলা মাকে।বাংলার মাটি, বাংলার জল, বাংলার বায়ু, বাংলার ফল পূণ্য হোক, পূণ্য হোক, পূণ্য হোক হে ভগবান।

বিজ্ঞাপন

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বিজেপির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেন, রবীন্দ্রনাথের জনগণ মন অধিনায়ক পাল্টে দিতে চাইছে, সাহস থাকলে পাল্টে দিয়ে দেখ, কী ভাবে উল্টে দিতে হয় জানি। মা বোনেরা সেই অপমানের বিরুদ্ধে শঙ্খ ঘণ্টা নিয়ে পথে নামবেন।

মমতা আরও বলেন, নতুন খেলা শুরু হয়েছে। হায়দরাবাদ থেকে পার্টি ধরে এনেছে। বিহারে দেখেছেন, কী ভাবে বিজেপির সুবিধা করে দিয়েছে, ভোট কেটে। বিজেপি এদের টাকা দেয়। এবার পরিকল্পনা, হিন্দু এলাকায় গিয়ে গালমন্দ করে মানুষ খেপাবে, আর মুসলমান এলাকায় গিয়ে ভালো ভালো কথা বলবে হায়দরাবাদের লোকজন।এতে বিজেপি পাবে হিন্দুদের ভোট আর ওরা মুসলমানের। এই পরিকল্পনা, চক্রান্ত ব্যর্থ করতেই হবে। মানুষকে বোঝাতে হবে, কী ভাবে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে, বাংলার বিরুদ্ধে।

বিজ্ঞাপন

শুভেন্দু র বিজেপি যাত্রা শুধু কয়েকদিনের অপেক্ষা। নির্বাচনের প্রাক্কালে তৃণমূলে বাড়ছে, বেসুরো গায়কের সংখ্যা। এরকম একটা পরিস্থিতি তে দলনেত্রীর স্পষ্ট হুঁশিয়ারি, গত ১০ বছর ধরে পার্টির হয়ে খেয়ে, সরকারের সব সুবিধা নিয়ে, যে বা যারা এখন ভোটের মুখে এর সাথে, ওর সাথে দস্তি করছে, তাদের কিছুতেই বরদাস্ত করব না। এদের চরম শিক্ষা দিন। ১০ বছর ধরে যে কর্মীরা দলের সঙ্গে আছে, তারাই আমার আসল সম্পদ। আমি বড়, সে ছোট নয়, পুরোনো নতুন, সবাই মিলে লড়াইয়ে ঝাঁপান। এটা বাংলা রক্ষার যুদ্ধ, যুদ্ধে বাংলা থেকে বিজেপিকে দুর করাই আদল লক্ষ্য। মমতা বলেন, রাষ্ট্রপতি শাসনের হুমকি দিচ্ছে, সেটা করে দেখাও, আমারই সুবিধা। অনেক সময় পাব, ঘুরে ঘুরে প্রচার করব, তোমাদের ভোটও নিয়ে নেব। ধমকে চমকে কাজ হবে না, তৃণমূল জিতছে, জিতবেই। এই জয় দিদির নয়, বাংলা মায়ের জয় হবে।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট