কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের দাবি মত লালগড় ব্রিজের নামকরণ হল বিপ্লবী রঘুনাথ মাহাত ব্রিজ


শুক্রবার,০১/০১/২০২১
238

ঝাড়গ্রাম :– কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের দাবি মত কংসাবতী নদীর উপর নির্মিত লালগড় ব্রিজ এর নাম দেয়া হল কুড়মি সম্প্রদায়ের বিপ্লবী রঘুনাথ মাহাতো এর নামে । এদিন ঝাড়গ্রাম জেলার লালগড় ব্লকের লালগড় ব্রিজের সামনে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে লালগড় ব্রিজ এর নতুন নামকরণ এর ফলক উন্মোচন করেন ঝাড়গ্রাম জেলা পরিষদের সভাধিপতি মাধবী বিশ্বাস এবং ঝাড়গ্রামের জেলাশাসক আয়েশা রানি এ । এদিন কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের নেতা রাজেশ মাহাতো বলেন, কুড়মী সমাজের বিপ্লবী রঘুনাথ মাহাতো এর নামে কংসাবতী নদীর উপর নির্মিত লালগড় ব্রিজের নাম দেয়ার জন্য পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে ধন্যবাদ জানাই । আমাদের মূল দাবি এসটি পূরণ হলে আমরা আরও কৃতজ্ঞ থাকব পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কাছে ।

এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঝাড়গ্রাম জেলা পরিষদের সভাধিপতি মাধবী বিশ্বাস, ঝাড়গ্রাম জেলার জেলাশাসক আয়েশা রানি এ,  তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্য সম্পাদক ছত্রধর মাহাতো, ঝাড়গ্রাম জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের কো-অডিনেটর অজিত মাহাতো, লালগড় থানার আইসি অরিন্দম ভট্টাচার্য সহ একাধিক প্রশাসনিক আধিকারিকরা ।

ছত্রধর মাহাতো বলেন, বিগত দিনে ব্রিজ না থাকার কারণে নানান সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছিল লালগড়ের মানুষকে । মুখ্যমন্ত্রীর ইচ্ছাই এই ব্রিজ তৈরি হয় এবং আজ তার নামকরণ করা হয় যা খুব গর্বের বিষয় ।

মেদনীপুরে মুখ্যমন্ত্রীর সভার দিন ঝাড়গ্রাম জেলা শাসকের অফিসের বাইরে এসটি সহ মোট ২৬ দফা দাবিকে সামনে রেখে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করে কুড়মী সমন্বয় মঞ্চ । ডেপুটেশন জমা দেয়া হয় ঝাড়গ্রামের জেলা শাসকের কাছে কিন্তু অবস্থান বিক্ষোভ চার দিনে পা দিলোও সরকারের কাছ থেকে কোন সদুত্তর না পেয়ে ঝাড়গ্রাম কুড়মী সমন্বয় মঞ্চের পক্ষ থেকে ঝাড়গ্রাম জেলা শাসকের দপ্তরের নিকটে আমরণ অনশনে বসে । গত মাসের ৭ই  ডিসেম্বর ঝাড়গ্রামে কুড়মী  সমন্বয়ক মঞ্চের পক্ষ থেকে  জেলাশাসকের দপ্তরে নিকট ২৬ দফা দাবি নিয়ে অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি শুরু করেন, তাদের দাবির মধ্যে কয়েকটি উল্লেখযোগ্য দাবি হলো কুড়মী জাতিকে এসটি তালিকাভুক্ত করা, কুরমালী ভাষার অষ্টম তফসিলি অন্তর্ভুক্তি করণ, এবং ঝাড়গ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় টি রঘুনাথ মাহাত নামে নামাঙ্কিত করণ । এই অবস্থান বিক্ষোভ তিন দিন পার  হয়ে চার দিন পা দিলেও রাজ্য সরকারের কাছে থেকে কোনো সদর্থক উত্তর তাদের কাছে না আশায় তারা আমরণ অনশন কর্মসূচি গ্রহণ করেছিল । অনশন মঞ্চে মেডিকেল টিম বসানোর দাবিতে ঝাড়গ্রামের বিভিন্ন জায়গায় পথ অবরোধ করেছিল কুড়মী সমন্বয় মঞ্চের নেতৃত্ব এবং সর্মথকরা ।

পুলিশের পক্ষ থেকে মেডিকেল টিম বসানোর আশ্বাস দেয়ার পর তাঁরা পদ অবরোধ তুলে নিয়েছিল । পরে রাজ্য সরকার কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের নেতাদের সাথে আলোচনায় বসার আশ্বাস দিলে অনশন কর্মসূচি তুলে নেন কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের নেতারা । কথামতো শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় ঝাড়গ্রামের এর প্রকৃতি পর্যটন কেন্দ্রে কুড়মি নেতাদের সাথে বৈঠক করেন । সেদিনের বৈঠকে বেশকিছু সরকারি প্রতিষ্ঠান নামকরণের দাবি করেন কুড়মি সমন্বয় মঞ্চের নেতারা । তারই প্রতিফলন দেখা দিল এদিন লালগড় ব্রিজের নামকরণের মধ্য দিয়ে ।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট