পরিবারের সদস্যরা সবাই মিলে ঠিক করলাম যে একটু মুক্ত বাতাসের খুব দরকার


বুধবার,০৬/০১/২০২১
4252

শার্মিতা মিত্র: দীর্ঘ অনেক সময় গৃহবন্দী থাকার পর সকলেই খুব হাঁপিয়ে উঠেছিলাম তাই পরিবারের সদস্যরা সবাই মিলে ঠিক করলাম যে একটু মুক্ত বাতাসের খুব দরকার। যেমন ভাবনা তেমন কাজ ১১ জন সদস্য মিলে ২ টো বাড়ির গাড়ী নিয়ে ২৪ সে ডিসেম্বর বেরিয়ে পরলাম ওড়িশা এর উদ্দশ্যে।সবার পছন্দের কথা মাথায় রেখেই ঠিক হলো গোপালপুর এবং দারিংবারি যাওয়া হবে, যেখানে সমুদ্র,পাহাড় , জঙ্গল সব কিছুর মজা একসাথে পাওয়া যাবে। এর আগে বহু বার পুরী যাওয়া হলেও গোপালপুর এই প্রথমবার। অসাধারণ রাস্তা পার করে আমরা ২৫ তারিখ সকালে গোপালপুর প্পৌঁছলাম। প্রথম দর্শনে গোপালপুর মন জিতে নিয়েছিল আমাদের সকলের, সমুদ্রের গর্জন, নীল জলরািতে আমরা মুগ্ধ হয়ে গেলাম। আমাদের হোটেল টির অবস্থান ছিল উপড়ি পাওনা, বলতে গেলে একেবারে সমুদ্র সৈকতের বালির ওপরেই তার অবস্থান।( Sea side breeze) হোটেল এর খাবারের মান ও বেশ ভালো।পরের দিন সকালে আমরা রওনা দিলাম ওড়িশা এর কাশ্মীর দারিংবারী র পথে। যেতে যেতে দেখলাম তপ্ত পানি, জিরাং মনেস্ট্রি, খাসাদা জলপ্রপাত। দারিংবারিতে আমরা ছিলাম হোটেল Turmeric খুব সুন্দর হোটেল টি। পরেরদিন সকালে দেখে নিলাম কাছাকাছি পর্যটন কেন্দ্র গুলি কফি বাগান, পাইন গাছের জঙ্গল, বাটারফ্লাই গার্ডেন, nature valley view point। এবার ফেরার পালা , মন টা একটু খারাপ হলেও অনেক টা ভালোলাগা আর স্নিগ্ধ তা নিয়ে এলাম। নতুন বছরে যাতে সব কিছু সুস্থ স্বাভাবিক হয়ে যায় সেই কামনা করেই পরবর্তী ট্যুরের পরিকল্পনা শুরু করলাম।

Booking.com
Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট