বাইক মিছিলের মাধ্যমে নেতায়ে পৌঁছায় শুভেন্দু অধিকারী, উপস্থিত ছিলেন নেতাই গণহত্যার শহীদ পরিবার


বৃহস্পতিবার,০৭/০১/২০২১
605

ঝাড়গ্রাম : প্রতিবছরে মত এবছরও নেতাই গ্রামের শহীদ পরিবারকে পাশে নিয়েই প্রথম শহীদ বেদিতে মাল্যদান মাধ্যমে শহীদ তর্পণ করলেন শুভেন্দু অধিকারী । কিন্তু শুভেন্দুর সঙ্গে নতুন মুখ হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঝাড়গ্রাম জেলা বিজেপির সভাপতি সুখময় সৎপতি । বৃহস্পতিবার সকালে ৮.৩০ মিনিট নাগাদ বাইক মিছিলের মাধ্যমে নেতায়ে পৌঁছায় শুভেন্দু অধিকারী । শুভেন্দু আসার আগে থেকেই শহীদ বেদির কাছে উপস্থিত ছিলেন নেতাই গণহত্যার শহীদ পরিবারের এবং আহত পরিবারের লোকজনরা । উপস্থিত ছিলেন নেতাই শহীদ স্মৃতি রক্ষা কমিটির সভাপতি দ্বারকানাথ পান্ডা । নেতাই পৌছায়েই শুভেন্দু প্রতিবছরের মত প্রথমে শহীদ বেদিতে মাল্যদান করেন । তারপরেই শহীদ পরিবারের পুরুষদের হাতে শাল ও মহিলাদের হাতে শাড়ি তুলেদেন এর পাশাপাশি আর্থিক সাহায্য করেন ।

এই বছর নেতাই শহীদ তর্পণ কে কেন্দ্র করে জোর রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়েছিল । শুভেন্দু নেতাই আসার ঘোষণা করার পরেই তৃণমূলের পক্ষ থেকে নেতাই দিবস পালনের আলাদা কর্মসূচি নেওয়া হয় । এই পরিস্থিতিতে নেতাই গ্রামবাসী এবং নেতাই শহীদ স্মৃতি রক্ষা কমিটির সদস্যরা নিজেদের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সিরদ্ধান্ত নেওয়া হয় তারা রাজনীতি থেকে দূরে থেকে সকাল সকাল শহীদ বেদিতে মাল্যদান করবেন । গতকাল রাতেই তৃণমূলের লোকজন ফুল ও শহীদদের ছবি দিয়ে সাজিয়ে তোলা হয় নেতাই শহীদ বেদি । শুভেন্দু সেই তৃণমূলের সাজানো শহীদ বেদিতে শহীদ পরিবার কে পাশে নিয়েই মাল্যদান করেন শুভেন্দু অধিকারী ।

এদিন শুভেন্দু অধিকারী বলেন , ২০১১ থেকে যারা কোনদিন নেতাই তে আসেনি । নেতাই শহীদ এবং আহত পরিবার এদের খোঁজ কোনদিন নেই নি । আমরা স্মৃতি রক্ষা কমিটির নামে করি এই গ্রামে সব দলের লোক আছে । কোনদিন আমার এখনে রাজনীতি করিনি । আজকে কুড়মি সমাজের একটা অংশ বনধ ডেকেছে তাই আমরা সীমিত ভাবে অনুষ্ঠান রেখেছি । এদের সঙ্গে আমার আত্মিক সম্পর্ক এই সম্পর্কটা রাজনীতির উর্দ্ধে । যদি এই সম্পর্কটা কেউ ছেঁড়ার চেষ্টা করেন দশ বছর জেলে কাটিয়ে তাহলে এতো সহজ হবে না । এইসব লোকের জন্য এইসব লোক গুলো মারা গেছে । শুধু সিপিএম কে দোষ দিলে হবে না । দিগত দিনে জনসাধারণ কমিটির নামে গোটা এলাকাটাকে যারা বিশৃঙ্খলা করেছে । তারা এসে গণতন্ত্রের কথা বলবে । বলবে শুভেন্দু অধিকারী কে লালগড়ে আটকে দেবে । ক্ষমতা থাকেল আটকে দেখতো । আমি মৃত্যুকে ভয় পায় না ।

বাইক মিছিলের মাধ্যমে নেতায়ে পৌঁছায় শুভেন্দু অধিকারী, উপস্থিত ছিলেন নেতাই গণহত্যার শহীদ পরিবার

লালগড় থেকে নেতাই গ্রাম পর্যন্ত তৃণমূলের দলীয় পতাকায় ভরিয়ে দেওয়া হয়েছে । কিন্তু নেতাই গ্রামের শহীদ বেদির সামনে না বিজেপি না তৃনমূল কোন রাজনৈতিক দলের দলীয় পতাকা দেখা যায়নি । শহীদ বেদির দূরে তৃণমূলের পতাকা দেখা গেলও  বিজেপির পতাকা দেখা যায়নি এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি কোন বছর করিনা, ওরা এবছর করেছে । তার উত্তর মানুষ দিয়ে দেবে । আমাকে কিচ্ছু করতে হবেনা । জঙ্গলমহলের মানুষকে বোকা ভাবা ঠিক না ।

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট