ডোমজুড়ের বাইরে বাংলার কোথাও ভোটে লড়ব না। হাওড়ায় বললেন রাজীব।


মঙ্গলবার,২৬/০১/২০২১
471

“ডোমজুড়ের বাইরে বাংলার কোথাও ভোটে দাঁড়াব না। ডোমজুড়েই ভোটে দাঁড়াব।” মঙ্গলবার দেশের ৭২তম প্রজাতন্ত্র দিবসে হাওড়ার শলপে এক রক্তদান শিবিরে এসে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “আজ প্রজাতন্ত্র দিবস অত্যন্ত শুভ দিন। পুণ্য দিন। প্রজাতন্ত্র দিবসের এই অনুষ্ঠানকে সাক্ষী রেখেই বলে দিচ্ছি আমার মানুষের সঙ্গে এতো সম্পর্ক আছে। আমি ডোমজুড়ের বাইরে বাংলার কোথাও দাঁড়াব না। ডোমজুড়েই দাঁড়াব।” তবে সেটা কোন দলের হয়ে তা তিনি বলেননি। ৩১ জানুয়ারি ডুমুরজলায় অমিত শাহের সভায় তিনি যোগ দেবেন কিনা, এই প্রশ্নের উত্তরে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমি ভবিষ্যৎ দ্রষ্টা নই।

আমি ঈশ্বরকে বিশ্বাস করি। আমি মানুষকে বিশ্বাস করি। ঈশ্বর যা করেন মঙ্গলের জন্য করেন।” রাজীববাবু আরও বলেন, “আমি দলের সাধারণ কর্মী কে অস্বীকার করবে ? আমি মনে করি বাকিরা সবাই দলের নেতৃত্ব। ওনার সঙ্গে ( অরূপবাবুর সঙ্গে ) দূরত্ব কোথায় ছিল বা দূরত্ব কম হয়েছে কিনা আমি জানিনা। আমি রাজনীতি করি মানুষের স্বার্থে। উনি অসুস্থ রয়েছেন। ওনার দ্রুত আরোগ্য কামনা করি। উনি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরুন। মানুষের হয়ে কাজ করুন।” কল্যাণ বন্দোপাধ্যায়ের প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমি অত্যন্ত ক্ষুদ্র মানুষ। অত্যন্ত ক্ষুদ্র কর্মী। উনি অনেক মহান নেতা। মহান মানুষ।

ওনার কথার জবাব দেওয়ার মতো ক্ষমতা আমি এখনো অর্জন করতে পারিনি।” রাজীববাবু আরও বলেন, “কেউ বলতে পারবেন না ( ডোমজুড়ের মানুষ বিশেষ করে ), রাজীববাবুকে রাস্তায় দেখেননি বা কোনদিনও দেখা যায়নি। সবসময় রাস্তায় নেমেছি। আম্ফান থেকে শুরু করে কোভিড পরিস্থিতিতে রাস্তায় নেমেছি। আজকে যারা বড় বড় কথা বলছেন, সেদিন কাউকেই দেখা যায়নি। সেদিন ডোমজুড়ের মানুষ দেখেছেন কাকে রাস্তায় দেখা গেছে। সেই উত্তর আমি দেব না। ডোমজুড়ের মানুষের সঙ্গে আমার আত্মার সম্পর্ক, আত্মিক সম্পর্ক। আগামী দিনে ডোমজুড়ের মানুষ বুঝিয়ে দেবেন কে তাদের পরিবারের সদস্য, আর কে বাইরের লোক ?”

Loading...

চাক‌রির খবর

ভ্রমণ

হেঁসেল

    জানা অজানা

    সাহিত্য / কবিতা

    সম্পাদকীয়


    ফেসবুক আপডেট